নবীগঞ্জে নারী নির্যাতন মামলায় ইউপি সদস্য কাজল গ্রেফতার

333

মতিউর রহমান মুন্না, নবীগঞ্জ থেকে ||
নবীগঞ্জ উপজেলার ২ নং বড় ভাকৈর (পুর্ব) ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার কাজল মিয়া (৩০)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। একই পরিষদের অপর এক মেম্বারের মেয়ে ৩ সন্তানের জননী সেলিনা বেগম’কে ধর্ষনের অভিযোগে দায়েরী মামলায় গতকাল বুধবার দুপুরে তাকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। ধৃত কাজল মিয়া উপজেলার রামপুর গ্রামের মৃত ময়না মিয়ার ছেলে।
পুলিশ সুত্রে জানাযায়, নবীগঞ্জ উপজেলার ২ নং বড় ভাকৈর ইউনিয়নের রামপুর গ্রামের ৩ নং ওর্য়াড মেম্বার রমজান আলীর মেয়ে এবং ওমান প্রবাসী হানিফ আলীর স্ত্রী সেলিনা বেগম’কে বিগত ৫ই আগষ্ট রাত সাড়ে ১১ টার দিকে ঘুমন্ত অবস্থায় ঝাপটে ধরে ডেগার দিয়ে প্রাণে হত্যার ভয় দেখিয়ে জোরপুর্বক ধর্ষন করেছে। এমন অভিযোগে ঘটনার ৩ দিন পর অর্থাৎ ৮ ই আগষ্ট ওমান প্রবাসীর স্ত্রী ৩ সন্তানের জননী হবিগঞ্জে নারী শিশু নির্যাতন দমন আদালতে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা করলে বিজ্ঞ বিচারক মামলাটি এফআইআর হিসেবে রুজু করার জন্য ওসি নবীগঞ্জ থানাকে নিদের্শ দেন। ওই দিন রাতেই নবীগঞ্জ থানায় মামলাটি এফআইআর হিসেবে রুজু হয়। এর প্রেক্ষিতে গতকাল বুধবার দুপুরে নবীগঞ্জ থানার এসআই মাজহারুল ইসলাম ও এএসআই আক্তার হোসেন এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ রামপুর নতুন বাজার সংলগ্ন ব্রীজের কাছ থেকে তাকে গ্রেফতার করেছে। এদিকে গ্রেফতার কৃত কাজল মিয়া নিজেকে নির্দোষ দাবী করে মামলাটি সাজানো ও ষড়যন্ত্র মূলক বলে দাবী করেছেন।