সাতক্ষীরায় জলাবদ্ধ জমিতে বোরো ধানের বাম্পার ফলন

352
gb

এম শাহীন গোলদার,সাতক্ষীরা::
লবনাক্ততা ও জলাবদ্ধতার কারণে সাতক্ষীরায় কৃষি জমি কমলেও গত বছরের তুলনায় চলতি বছর বোরো আবাদের লক্ষমাত্রা ছাড়িয়েছে। জলাবদ্ধ ও অনাবাদি জমিতে বোরো আবাদ করে জমির পরিমাণ বাড়ানো হয়েছে বলে মনে করেন কৃষি বিভাগ।
সাতক্ষীরা জেলায় ৭৬ হাজার ৩৪৫ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ হয়েছে। গত বছর ৭৪ হাজার ৪৩০ হেক্টর জমিতে বোরো চাষ হয়েছিল। উৎপাদন হয়েছিল ৩০ হাজার ৮৭৪২ মেট্রিক টন ধান। কৃষি অফিস বলছে, সুষ্ঠ ভাবে ফসল ঘরে তুলতে পারলে ৭৩ হাজার ৪২০ মেট্রিকটন ধান উৎপাদন সম্ভব।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, জেলায় চলতি অর্থ বছরে ২০১৭-১৮ সালে বোরো আবাদ হয়েছে ৭৬ হাজার ৩৪৫ হেক্টর জমিতে, ২০১৬-১৭ সালে ৭৪ হাজার ৪৩০ হেক্টর জমিতে, ২০১৫-১৬ সালে ৭৩ হাজার ৩৪৫ হেক্টর জমিতে, ২০১৪-১৬ সালে ৭৪ হাজার ২৮৫ হেক্টর জমিতে, ২০১৩-১৪ সালে ৭৩ হাজার ৮৩০ হেক্টর জমিতে, ২০১১-১২ সালে ৭৩ হাজার ৯৮৫ হেক্টর জমিতে ও ২০১০-০৯ সালে ৭০ হাজার ২৬০ হেক্টর জমিতে কৃষি আবাদ হয়েছিল।
এবার সাতক্ষীরা সদরে সবচেয়ে বেমি ২৩৯২৫ হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষ হয়েছে। লোনা পানির প্রভাবে এবারও শ্যামনগরে ২১০০ হেক্টর জমিতে বোরো চাষের আওতায় আনা হয়েছে।
সাতক্ষীরা তালা উপজেলার শ্রীমন্তকাটি গ্রামের কৃষক মতিউর রহমন জানান,তিনি এবার ৫ বিঘা জমিতে বোরো আবাদ করেছেন। আর কিছুদিন পরে ধান কাট শুরু হবে বলে তিনি জানান। তিনি আরও বলেন আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে বিঘা প্রতি ১৮ থেকে ২০ দিন পাবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন।
আশাশুনি উপজেরার দক্ষীণ দরগাহপুর গ্রামের কৃষক বিপ্লাব আলী হযরত জানান,এখনো পর্যন্ত ফলন ভাল আশা করছি। তবে এবার ধানে বিক্রয় বাজার যদি ভাল না থাকে তবে কৃষক অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যাবে।

সাতক্ষীরা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কাজী আব্দুল মান্নান জানান,এবার এখনো পর্যন্ত জেলায় বোরো ধানের ফলন ভাল লক্ষ্য করা যাচ্ছে। আকাশের মাঝে মেঘের ঘনঘাটা দেখে একটু চিন্তিত। সুষ্ঠভাবে কৃষকের ঘরে ধান উঠলে আমাদের লক্ষমাত্রা অর্জিত হবে বলে আশা করছেন তিনি। কৃষি জমির পরিমান কমে যাচ্ছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন জেলায় কৃষি একদিকে কৃষি জমির পরিমাণ একদিকে কমলেও অন্যদিকে বাড়ছে। জেলায় যেসব জমি পতিত ও জলাবদ্ধ ছিল সেসব জায়গায় উন্নত মানের ধান রোপন করে ধান চাষ করা হচ্ছে। তবে প্রতি বছর কৃষি বিভাগের লক্ষমাত্রা অর্জন করছে বলে তিনি জানান।