ফ্রান্সে রেলস্টেশনে ছুরি নিয়ে হামলা, নিহত ৩

248
gb

ফ্রান্সের দক্ষিণাঞ্চলের একটি শহরের রেলওয়ে স্টেশনে এক ব্যক্তির ছুরি নিয়ে হামলায় অন্তত দুই জন নিহত হয়েছেন। পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছে হামলাকারীও।

এটিকে সন্ত্রাসী হামলা বলে উল্লেখ করছে পুলিশ। রবিবার স্থানীয় সময় বিকেলে রাজধানী প্যারিস থেকে প্রায় ৭৭৬ কিলোমিটার দূরত্বের মার্সেই সেন্ট চার্লস শহরের ওই রেলওয়ে স্টেশনে এ হামলা হয়। এ বিষয়ে বিস্তারিত আর কিছু তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। ঘটনার পর থেকে পুলিশ ওই এলাকা এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে জানানো হয়, আক্রমণকারী আল্লাহু আকবর বলে চিৎকার করে হামলা চালিয়েছে। তবে পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে এবং ঘটনাস্থলে বিপুলসংখ্যক আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মোতায়েন রয়েছে। স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানায়, দুই নারীর মধ্যে একজনকে গলা কেটে এবং অন্যজনকে পরপর কয়েকবার পেটে ছুরি মেরে হত্যা করে ওই হামলাকারী। আঞ্চলিক পুলিশ প্রধান অলিভিয়ার দ্য মাজিয়েরেস সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ঘটনাস্থলে ছুটে যাচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেরার্ড কলম্ব।

হামলার প্রত্যক্ষদর্শী এক নারী রয়টার্সকে বলেন, এক ব্যক্তি তার আস্তিন থেকে একটি ছুরি বের করে এবং অল্প বয়সী এক মেয়েকে ছুরিকাঘাত করে।

তারপর সে আরও এক নারীকে ছুরিকাঘাত শুরু করে। সে খুব সম্ভবত আল্লাহু আকবর বলে চিৎকার করেছিল। ফ্রান্স ন্যাশনাল পুলিশের পক্ষ থেকে টুইটারে বলা হয়, পুলিশ ঘটনাস্থলের নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। হামলাকারীকে নিরস্ত্র করা হয়েছে, তাকে গুলি করা হয়েছে।

পুলিশ ঘটনাস্থল ঘিরে রেখেছে, ওই স্টেশন দিয়ে ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এবং পুলিশ জনগণকে ওই এলাকা এড়িয় চলার পরামর্শ দিয়েছে। ওই এলাকায় টহলরত পুলিশ কিছুক্ষণের মধ্যেই ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় বলে জানান তিনি। ২০১৫ সাল থেকে এখন পর্যন্ত বিভিন্ন হামলায় ফ্রান্সে ২৩৯ জন নিহত হয়েছেন। ২০১৫ এর নভেম্বরে প্যারিসে হামলার পর থেকে ফ্রান্সজুড়ে জরুরি অবস্থা চলছে।