স্পেনে ফিতুর নামে আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলা আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন

457
gb

বকুল খান স্পেন থেকে ||

স্পেনে ফিতুর নামে আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলায় ৬ নম্বর হলের ৬ই২২ নম্বর স্টলটি স্পেনে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার ফিতা কেটে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন। তিনি, এসময় বাংলাদেশকে পর্যটন শিল্পে অমিত সম্ভাবনাময়ি দেশ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন,ষড়ঋতুর প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের ঘেরা এই দেশ বহির্বিশ্বে উপস্থাপন করতে পারলে, নতুনএকটি দিগন্ত সূচনা হবে বিশ্বাস করি। তিনি আরও বলেন, Inline images 1 বাংলাদেশে পর্যটন খাতের টেকসই উন্নয়ন সম্ভব হলে এই খাতে ব্যাপক কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ রফতানি ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে এক চমত্কার নজির স্থাপন হতে পারে। কেন না উন্নত পর্যটন শিল্প বিকাশের সকল উপাদানই বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সহজলভ্যতায় বিরাজমান।

এ মেলার বাংলাদেশ দুতাবাসে কমার্শিয়াল কাউন্সিলর ও বাংলাদেশ স্টলের ব্যবস্থাপক নাভিদ শফিউল্লাহ বলেনInline images 2,…। স্পেনের রাজা ফিলিপ খুয়ান পাবলো আলফন্স ও সস্ত্রীক মেলা পরিদর্শন করছেন।।

আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলায় বাংলাদেশের অংশগ্রহণ স্পেনিশদের পাশাপাশি,এই রকম একটি বড় আসরে নিজেদের পরিচিতি তুলে ধরাটা মুখ্য বিষয়।হাজার হাজার ভ্রমন পিপাসুদের কাছে বাংলাদেশ কে তুলে ধরা যাবে বলে তিনি মন্তব্য করেন। এসময় উপস্তিত ছিলেন, পর্যটন ও বেসরকারি মন্ত্রলায়ের অতিরিক্ত সচিব নিখিল রঞ্জন রায়,ট্যুর অপারেটর কর্মকর্তা তারেক মাহমুদ ,গ্লোবাল ট্র্যাভেলস মাদ্রিদের এর পরিচালক আহমেদ শাফি,বিশিষ্ট ব্যবসায়ী উত্তম মিত্র।

৫ দিনব্যাপী অনুষ্ঠিতব্য আন্তর্জাতিক এ পর্যটন মেলায় বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের ব্যবস্থাপনায় ও বাংলাদেশ দূতাবাসের সার্বিক সহযোগিতায় বাংলাদেশের পাঁচটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে।

মেলাটির ৩৮তম আসরে বাংলাদেশসহ বিশ্বের ১৩৬টি দেশের পর্যটন শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান, ট্যুর অপারেটর, পর্যটন বিষয়ক গবেষক, সাংবাদিক, লেখকসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ছাড়াও দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভিড় ।

‘ফেরিয়া দে মাদ্রিদ’ নামক আন্তর্জাতিক ভেন্যুতে অনুষ্ঠিতব্য এ মেলার ২০১৪ সালের পর এবার বাংলাদেশ অংশ নিল। বর্তমান বিশ্বে পর্যটন খাত অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে চালিকাশক্তি হিসেবে অনেক দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। শনি ও রবি বার সর্বসাধারণের জন্য উম্মুক্ত থাকবে।