বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচের উত্তেজনা স্পর্শ করে না ক্রিকেটারদের

জিবি নিউজ ২৪ ডেস্ক//

গত কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ অন্যরকম উত্তেজনা ছড়াচ্ছে। বিশেষ করে ২০১৫ বিশ্বকাপের সেই বিতর্কিত কোয়ার্টার ফাইনালের পর থেকে। দুই দেশের কোনো ম্যাচ থাকলেই পাল্টাপাল্টি স্লেজিং শুরু হয়ে যায় সমর্থকদের মধ্যে। বানানো হয় বিজ্ঞাপন। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। কাল থেকে ভারতের মাটিতে প্রথমবার দ্বিপাক্ষিক টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু করবে বাংলাদেশ। যথারীতি বিজ্ঞাপন বানিয়েছে স্টার প্লাস। দর্শকদের এই উত্তেজনা ক্রিকেটারদের মাঝে কি প্রভাব ফেলে?

আজ ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে এমন প্রশ্নের জবাবে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বলেন, ‘আমরা মাঠে সেভাবে অনুভব করি না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশি প্রভাব পড়ে। আমাদের কাছে খেলাটিই অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। ভারত-অস্ট্রেলিয়া বা যেকোন দলের বিপক্ষেই আমরা শতভগের বেশি দেয়ার চেষ্টা করি।’

এবারের সিরিজে বাংলাদেশ দলে অভিজ্ঞতা বলতে শুধুমাত্র মাহমুদউল্লাহ আর মুশফিকুর রহিম। এমন অভিজ্ঞতা দিয়ে ভারতের মতো দলকে ধরাশায়ী করা মোটেও সহজ নয় এমনটা জানেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। তারপরও তিনি বললেন, ‘আসলে চাপ থাকবেই। এভাবেই খেলতে হবে এবং পারফরমেন্স করতে হবে। আমি খুশি যে, আল-আমিন দলে ফিরেছে। দীর্ঘদিন ধরেই দলের সাথে খেলছে সে। সানিও অভিজ্ঞ খেলোয়াড়। সবকিছু মিলিয়ে আমি আশাবাদী। এখন মাঠে নেমে পারফরমেন্স করাই আসল লক্ষ্য।’

দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেলে, দলের সেরা খেলোয়াড়রা বাইরে থাকলে বা ক্রাইসিস মোমেন্টে জ্বলে উঠে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। দেশের ক্রিকেটাঙ্গন বর্তমানে কঠিন এক সময় পার করছে। তবে কি এবারও বাংলাদেশ জ্বলে উঠবে? এই প্রশ্নে রিয়াদ বলেন, ‘আমরা বেশ ইতিবাচক। ফলাফল নিয়ে আমরা ইতিবাচক। আমরা জানি নিজেদের কন্ডিশনে ভারত অনেক বেশি শক্তিশালী। সম্প্রতি পারফরমেন্স তেমনই বলে। আমাদের হারানোর কিছু নেই। যা হাতে যা আছে তা নিয়েই আমরা বেশি ভাবছি। ভালো এবং ইতিবাচক ক্রিকেট খেলতে চাই।’