আবরারের হত্যাকারী সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং তার পরিবারকে রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষতিপূরণ প্রদানের দাবী জাতীয় মানবাধিকার আন্দোলনের

104
gb

জিবি নিউজ।।

ভারতীয় পরিকল্পনায় বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের আবরার ফাহাদ-এর হত্যাকারী সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং ফাহাদের পরিবারকে রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষতিপূরণ প্রদানের দাবী জানিয়েছেন জাতীয় মানবাধিকার আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা ও  চেয়ারম্যান মুহাম্মদ মাহমুদুল হাসান। তিনি বলেছেন, আবরার হত্যাকান্ড দেশ-বিদেশের একটি গভীর চক্রান্তের অংশ। ভারত দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশে এ ধরনের প্রক্রিয়া চালিয়ে যাচ্ছে। ভারতীয় আগ্রাসনের বিরুদ্ধে যারাই কথা বলে তাদের হয়তো গুম বা খুন হতে হচ্ছে।

আজ শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয় মানবাধিকার আন্দোলনের উদ্যোগে বুয়েটের মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ-এর হত্যাকারী সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং ফাহাদের পরিবারকে রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষতিপূরণ প্রদানের দাবীতে প্রতিকী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

জাতীয় মানবাধিকার আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা ও  চেয়ারম্যান মুহাম্মদ মাহমুদুল হাসানের সভাপতিত্বে ও মহাসচিব খন্দকার মো: মহিউদ্দিন মাহির সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন ইসলামী ঐক্যজোটের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা শাখাওয়াত আমীন, জাতীয় মানবাধিকার আন্দোলনের সিনিয়র ভাইস-চেয়ারম্যান এডভোকেট মো. আল-আমিন, সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান খান, আদর্শ নাগরিক আন্দোলনের সহ-সভাপতি এস.এম আবুল কালাম আজাদ, সিনিয়র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এস.এম কামালউদ্দিন ইসমাইল, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এম.সাইফুল ইসলাম মজুমদার, প্রচার সম্পাদক আবু হাসান মাসুদ, কুষ্টিয়া জেলার আহবায়ক সাব্বির আহমেদ প্রমূখ।

এডভোকেট মো. আল-আমিন বলেন, প্রধানমন্ত্রী যখন ভারত সফরে গেলেন আমরা অত্যন্ত আশাবাদী ছিলাম। আমরা ভেবেছিলাম তিনি অন্তত তিস্তা নদীর পানির ব্যাপারে একটি সমঝোতার খবর নিযয়ে আসবেন। আজকে দশ বছর এই সরকার রাষ্ট্র ক্ষমতায় আছে, তারপরেও আমাদের ন্যায্য হিস্যা তিনি অর্জন করতে পারেননি। প্রধানমন্ত্রী ভারতকে ফেনী নদীর পানি দিয়ে আসলেন অথচ কোনো জাতীয় স্বার্থ পূরণ করেননি।

gb

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More