মৌলভীবাজারে মধ্যরাতে প্রতিবেশীর ২২৮ ফুট বাসার সীমানা প্রাচীর ভাঙচুর ॥ থানায় মামলা

190
gb

।। জিবি নিউজ।।

মৌলভীবাজার পৌর শহরের সেন্ট্রাল রোডস্থ মধ্যপাড়ায় লন্ডন প্রবাসী মোঃ মছব্বির মিয়া ও তার প্রতিবেশী সামিউল হকের বাসার ২২৮ ফুট সীমানা প্রাচীর মধ্য রাতে ভাঙচুর করছে কতিপয় দুর্বৃত্ত। এঘটনায় (২০ আগষ্ট) মঙ্গলবার রাতে প্রবাসী মোঃ মছব্বির মিয়া’র খালাতো ভাই বাসার তত্ত্বাবধায়ক হাজী মোঃ আব্দুস সালাম বাদী হয়ে মৌলভীবাজার মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন (মামলা নং ২৩)। ভুক্তভোগীদের স্বজনরা ভাঙচুরের জন্য প্রতিবেশী মৃত আব্দুর রহমানের পুত্র বাবর রাহমানকে দায়ী করছেন। বাবর রহমানকে প্রধানকে প্রধান আসামী করে ৫০/৬০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে মামলার করা হয়েছে।
জানা যায়, বাবর রহমান লন্ডন প্রবাসী মোঃ মছব্বির মিয়া ও সামিউল হকের প্রতিবেশি। বাবর রহমান তার বাসার রাস্তা প্রশস্ত করতে গিয়ে রাতের আধারে দুই প্রতিবেশীর অনেক পুরানো বাউন্ডারি ওয়াল ভেঙে পেলেন।
প্রবাসীর স্বজনরা জানান, শনিবার দিবাগত রাত দেড়টায় প্রতিবেশী বাবর রহমান এর নেতৃত্বে ৫০/৬০ জন লোক লন্ডন প্রবাসী মোঃ মছব্বির মিয়া’র ১০০ ফুট ও প্রতিবেশী সামিউল হকের ১২৮ ফুট বাসার সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে নিজের ব্যবহৃত রাস্তা বড় করতে চান। এসময় স্থানীয়রা দেয়াল ভাঁঙ্গার আওয়াজ শুনে ঘটনা স্থলে আসলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। এতে উভয় পক্ষের প্রায় ৯লক্ষাধির টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রন্ত পরিবারে স্বজনরা জানান।
এবিষয়ে জানতে অভিযুক্ত বাবর রহমান এর বাসায় গেলে তাকে পাওয়া যায়নি। পরে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করলে বন্ধ পাওয়া যায়।
মামলার বাদী ও বাসার তত্ত্বাবধায়ক হাজী মোঃ আব্দুস সালাম বলেন, (১৮ আগস্ট) রবিবার রাত দেড় টায় কোনো কারণ ছাড়াই হঠাৎ করে বাবর সন্ত্রাসীদের দিয়ে হামলা করে উভয় দেয়াল ভাঙচুর করে। এঘটনার পর থেকে সে গা ঢাকা দিয়েছে। পুলিশ এঘটনায় তাকে খুঁজছে বলে তিনি জানান। রাতের আধারের এমন ন্যাক্কারজন ঘটনায় শহরের বিশিষ্টজনসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষজন নিন্দা জানিয়েছেন।
এবিষয়ে মৌলভীবাজার জেলা পুলিশ সুপার ফারুক আহমদ বলেন, ভাঙচুরকারীদের গ্রেফতার করতে আমাদের অভিযান অব্যাহত আছে।

 

gb

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More