ইতালিতে পাসপোর্ট নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতার মন্তব্যে তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার

60

ইতালিতে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম এ রব মিন্টু সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রায় দুই হাজার পাসপোর্ট সমস্যা সংক্রান্ত বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথোপকথন প্রকাশ করায় ব্যাপক আলোচনা সৃষ্টি হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী ফিনল্যান্ড সফরে এলে ইতালিতে প্রায় দুই হাজার পাসপোর্ট সমস্যায় ভুগছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। এর প্রতিকারের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করলে প্রধানমন্ত্রী এম রব মিন্টুকে পরামর্শ দেন মৌখিকভাবে না বলে ভুক্তভোগীদের নামের লিস্ট দাও।

ফিনল্যান্ড সফর শেষে মিন্টু ইতালিতে এসে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রবাসী বাংলাদেশিদের পাসপোর্ট সমস্যা সমাধানের কথা প্রধানমন্ত্রীকে অবগত করা হয়েছে এবং নেত্রীও প্রবাসী বাংলাদেশিদের সমস্যা সমাধানে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন এরকম একটি পোস্টে ইতালি প্রবাসীদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়।
তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ইতালির পাসপোর্ট সমস্যা সমাধানের বিষয়টি বেশ ইতিবাচক হিসেবে প্রবাসী বাংলাদেশিরা নিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী এরকম বিনয়ী হওয়ায় ভুক্তভোগী অনেক প্রবাসী প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। পাশাপাশি এম এ রব মিন্টুকে ধন্যবাদ জানান নেত্রীর কাছে সমস্যাটি তুলে ধরার জন্য।

এরপরই রোম দূতাবাসের সঙ্গে জড়িত বহিরাগত কিছু মানুষ অপপ্রচার করতে শুরু করেন তার বিরুদ্ধে।

এ প্রসঙ্গে এম এ রব মিন্টু বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফিনল্যাণ্ড সফরকালে ইতালি প্রবাসীদের পাসপোর্ট সমস্যার কথা তুলে ধরি। এ সময় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভুক্তভোগীদের তালিকা চেয়ে বলেন ইতালি প্রবাসী ভুক্তভেগীদের তালিকা করে আমার কাছে পাঠাও। এই মর্মে রোমে এসে ফেসবুকে ভুক্তভোগীদের তালিকা চেয়েছি। তালিকা চাওয়ায় রোমের চিহ্নিত দালাল এবং দালালদের সাঙ্গ-পাঙ্গরা আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার শুরু করেছে।

এদিকে এম এ রব মিন্টুর বিরুদ্ধে অপপ্রচার করায় প্রতিবাদী হয়ে উঠছে সাধারণ ভুক্তভোগী প্রবাসীরা। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এম এ রব মিন্টুর বিরুদ্ধে অপপ্রচারের পিছনে তিনটি কারণ। আসন্ন ইতালি আওয়ামী লীগের সম্মেলনে এম এ রব মিন্টু সাধারণ সম্পাদক পদে শক্তিশালী প্রার্থী। রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলে এমন অপপ্রচার করা হচ্ছে তার বিরুদ্ধে। অভিযোগ উঠেছে দূতাবাসের অ্যাপয়ন্টমেন্ট (পোন্তামেন্ত) এনে দেয়ার কথা বলে ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার।

জানা যায়, গুটিকয়েক লোক অপপ্রচার চালালেও সাধারণ প্রবাসীরা তার পাশে রয়েছে। খেতাব পেয়েছেন ভুক্তভোগী প্রবাসীদের আপনজন হিসেবে। এর পূর্বেও ইতালিতে বৈধতা দেয়া হবে এমন মিথ্যা ফেসবুক লাইভের বিরুদ্ধে এম এ রব মিন্টু সক্রিয় ভূমিকা রাখেন। তিনি অবৈধ প্রবাসীদের সঠিক সংবাদটি প্রচার করেন।

অন্যদিকে পাসপোর্ট সমস্যার সমাধান আলাপচারিতার জন্য সাধুবাদ জানান ইতালি আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জাহাঙ্গীর ফরাজী। তিনি তার ফেসবুকে লিখেছেন এগিয়ে যান মিন্টু ভাই ভাল কাজে বাঁধা আসবেই।

মন্তব্য
Loading...