মানববন্ধনে নেতৃবৃন্দ ঘোষিত বাজেট লুটেরা শ্রেণীর স্বার্থ রক্ষা করবে

89

 

সরকারের প্রস্তাবিত বাজেট জনদুর্ভোগ আরও প্রকট করবে ও লুটেরা শ্রেণীর স্বার্থ রক্ষা করবে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া।

তিনি বলেন, বিশাল অঙ্কের ঋণনির্ভর বাজেট। এই বাজেট গণ মানুষের কল্যাণে বা বিশাল দরিদ্র জনগণের কথা ভেবে করা হয়নি। এই বাজেটে দুই পদ্ধতিতে ভ্যাট আরোপ হতে যাচ্ছে। তিনি বলেন, এতে ট্যাক্স অন ট্যাক্স বা করের ওপর (দ্বৈত কর )আরোপ করা হবে। তখন পণ্য ও সেবার খরচ বাড়বে, যা ভোক্তার উপর এসে পড়বে। পৃথিবীর কোথাও এমন আইন নেই। পণ্য মূল্য বেড়ে যাবে এবং এতে মূলত ক্ষতিগ্রস্ত হবেন ভোক্তারা। জনগণের কাছে জবাবদিহিতা নাই বলেই এই সরকার ঋণের বোঝা বাড়িয়ে জনদুর্ভোগ আরও প্রকট করবে।

শনিবার বিকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে “দুর্নীতি ও লুটপাটের বাজেট ও গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির পায়তারার প্রতিবাদে সোনার বাংলা পার্টি আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসুচীতে সংহতি প্রকাশ কালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি নতুন করে পুনরায় গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির পাঁয়তারায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, গ্যাসের দাম বাড়ানোর ‘পাঁয়তারা’ জনস্বার্থ বিরোধী। জ্বালানি খাতের সঙ্কটের জন্য সরকারের দুর্নীতি, ভুল নীতিই দায়ী, এর খেসারত কেন জনগণকে দিতে হবে ? বর্তমানে জ্বালানী গ্যাস নিয়ে লুট পাট ও দুর্নীতি চলছে। এই সমস্ত লুটপাটকারি, দুনীতিবাজদের সহতা করার জন্য গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির পায়তারা করা হচ্ছে। কোন ভাবেই গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি করা যাবে না। মূল্য বৃদ্ধির পায়তারা করা হলে তার বিরুদ্ধে তীব্র আন্দোল গড়ে তুলতে হবে সকল রাজনৈতিক দলকে সম্মিলিতভাবে।

সোনার বাংলা পার্টির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ হারুন-অর-রশিদের সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসূচীতে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কমি্উনিস্ট পার্টি (মার্কস) সাধারণ সম্পাদক এম এ সামাদ, গণমুক্তি পার্টির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মোমিন, জাতীয় বিপ্লবী পার্টির আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ, সমাজতান্ত্রিক মজদুর পার্টির সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম, সমাজচিন্তা ফোরামের আহ্বায়ক কামাল হোসেন বাদল, ইসলামী ঐক্যজোটের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মুক্তিযোদ্ধা মাওলানা শওকত আমীন প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে সোনার বাংলা পার্টির সাধারন সম্পাদক সৈয়দ হারুন-অর-রশিদ বলেন, সরকারের ঘোষিত বাজেট জনগন ও দেশের কল্যানের বাজেট নয়, নিজের কল্যানের বাজেট। এই বিশাল বাজেট দুর্নীতি ও লুটপাটের জন্যই করা হয়েছে। জনগনকে ধোকা দিয়ে বোকা বানানোর বাজেট।

তিনি বলেন, জনগনকে ধোকার বাজেট দিচ্ছেন আর অন্যদিকে গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির মাধ্যমে লুটেরা গোষ্টির পকেট ভরার পায়তারা করছে সরকার। সরকারের এই অপরাজনীতির বিরুদ্ধে আমাদের রুখে দাড়াতে হবে।