অধ্যাপক মুহাম্মদ জাফর ইকবালের উপর হামলার নিন্দা

অধ্যাপক মুহাম্মদ জাফর ইকবালের উপর হামলার নিন্দা

অধ্যাপক মুহাম্মদ জাফর ইকবালের উপর হামলার নিন্দা

456
gb

প্রেস বিজ্ঞপ্তি  | ঢাকা, ৪ মার্চ ২০১৮ ||

বিশিষ্ট লেখক অধ্যাপক মুহাম্মদ জাফর ইকবালের উপর জঙ্গী হামলার তীব্র নিন্দা করেছে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি। আজ সংগঠনের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা পরিষদ ও কার্যনির্বাহী পরিষদের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়⎯
‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পক্ষের জনপ্রিয় লেখক এবং শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বরেণ্য অধ্যাপক মুহাম্মদ জাফর ইকবালের উপর জঙ্গী মৌলবাদী সন্ত্রাসীদের কাপুরুষোচিত হামলায় আমরা অত্যন্ত উদ্বিগ্ন ও ক্ষুব্ধ। আমরা এই জঙ্গী হামলার তীব্র নিন্দা করি।
‘মুহাম্মদ জাফর ইকবাল সহ মুক্তিচিন্তার শিল্পী সাহিত্যিক বুদ্ধিজীবীদের নাম দীর্ঘকাল ধরে জঙ্গী মৌলবাদী সন্ত্রাসীদের হত্যা তালিকায় রয়েছে, যাদের কয়েকজন গত কয়েক বছরে নিহত ও আহত হয়েছেন। ২০১৩ সালের ফেব্রæয়ারিতে হেফাজতে ইসলামের প্রধান আহমদ শফী বিশাল খোলা চিঠি লিখে জাফর ইকবাল সহ মুক্তিচিন্তার লেখক ও বুদ্ধিজীবীদের ‘নাস্তিক’, ‘মুরতাদ’ ঘোষণা করে এ ধরনের হত্যা ও হামলাকে ইসলামের নামে বৈধতা দিয়েছেন যার বিরুদ্ধে সরকারিভাবে কোন পদক্ষেপ নেয়া হয় নি। ‘মাঠ পর্যায়ে খুচরা জঙ্গীদমনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সাফল্য দাবি করলেও এসব জঙ্গীদের মূল রাজনীতি ‘মওদুদিবাদ’, ‘ওহাবিবাদ’ বাংলাদেশে সক্রিয় রয়েছে। আমরা গত ২৬ বছর ধরে জামায়াত-শিবির চক্রের মৌলবাদী-সা¤প্রদায়িক রাজনীতি নিষিদ্ধকরণের দাবিতে আন্দোলন করছি। সরকার যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করলেও যতদিন পর্যন্ত ধর্মের নামে জামায়াত-শিবির চক্রের মৌলবাদী সা¤প্রদায়িক সন্ত্রাসী রাজনীতি নিষিদ্ধ না হবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী কোনও নাগরিকই নিরাপদ থাকবেন না।
‘আমরা মুহাম্মদ জাফর ইকবালের উপর হামলার নিবিড় তদন্ত দাবি করছি এবং অবিলম্বে এর নেপথ্য নায়কদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যারা জাফর ইকবাল সহ মুক্তচিন্তার শিল্পী সাহিত্যিক বুদ্ধিজীবীদের বিরুদ্ধে এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বিরুদ্ধে ক্রমাগত বিষোদগার করছে তাদেরও অবিলম্বে গ্রেফতার করে বিচার ও শাস্তি দাবি করছি।’
বিবৃতিদাতা⎯
বিচারপতি মোহাম্মদ গোলাম রাব্বানী, ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ, বিচারপতি সৈয়দ আমিরুল ইসলাম, বিচারপতি শামসুল হুদা, বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, অধ্যাপক অজয় রায়, কর্ণেল (অব.) আবু ওসমান চৌধুরী, লেখক সাংবাদিক আবদুল গাফফার চৌধুরী, সাংবাদিক কামাল লোহানী, অধ্যাপক বোরহানউদ্দিন খান জাহাঙ্গীর, অধ্যাপক অনুপম সেন, কথাশিল্পী হাসান আজিজুল হক, ভাস্কর ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী, শিল্পী হাশেম খান, শিল্পী রফিকুননবী, অধ্যাপিকা পান্না কায়সার, স্থপতি রবিউল হুসাইন, অধ্যাপিকা মাহফুজা খানম, ক্যাপ্টেন শিহাবউদ্দিন বীরউত্তম, ক্যাপ্টেন আকরাম আহমেদ বীরউত্তম, মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আবদুর রশীদ (অবঃ), ডাঃ আমজাদ হোসেন, সমাজকর্মী নূরজাহান বোস, কবি রুবী রহমান, ড. নূরন নবী, লেখক সাংবাদিক শাহরিয়ার কবির, অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন, শহীদজায়া শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী, শহীদজায়া সালমা হক, কলামিস্ট সৈয়দ মাহবুবুর রশিদ, শিক্ষাবিদ মমতাজ লতিফ, সাংবাদিক চলচ্চিত্রনির্মাতা শামীম আখতার, অধ্যাপক আবুল বারক আলভী, সমাজকর্মী কাজী মুকুল, সমাজকর্মী খোন্দকার আবদুল মালেক শহীদুল­াহ, ড. ফরিদা মজিদ, সমাজকর্মী আরমা দত্ত, এডভোকেট জিয়াদ আল মালুম, এডভোকেট খন্দকার আবদুল মান্নান, অধ্যাপক আয়েশ উদ্দিন, অধ্যাপক মেজবাহ কামাল, ডাঃ শেখ বাহারুল আলম, ড. মেঘনা গুহঠাকুরতা, ডাঃ ইকবাল কবীর, মুক্তিযোদ্ধা মকবুল-ই এলাহী, মুক্তিযোদ্ধা শফিকুর রহমান শহীদ, এডভোকেট আবদুস সালাম, সমাজকর্মী আক্কাস হোসেন, অধ্যাপক মোহাম্মদ সেলিম, অধ্যাপক আবদুল গফ্ফার, কবি জয়দুল হোসেন, ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ, মুক্তিযোদ্ধা কাজী লুৎফর রহমান, সাবেক ফুটবলার শামসুল আলম মঞ্জু, সমাজকর্মী কামরুননেসা মান্নান, সাংবাদিক ফজলুর রহমান, সঙ্গীতশিল্পী জান্নাত-ই ফেরদৌসী লাকী, সাংবাদিক শওকত বাঙালি, উপাধ্যক্ষ কামরুজ্জামান, সমাজকর্মী সরদার জাকির হোসেন খসরু, ডাঃ নুজহাত চৌধুরী শম্পা, লেখক আলী আকবর টাবী, অধ্যাপক উত্তম কুমার বড়–য়া, সমাজকর্মী চন্দন শীল, এডভোকেট দীপক ঘোষ, সাংবাদিক মহেন্দ্র নাথ সেন, ডাঃ মামুন আল মাহতাব, ডাঃ মোহাম্মদ মুরাদ হাসান, শহীদসন্তান তৌহিদ রেজা নূর, শহীদসন্তান শমী কায়সার, শহীদসন্তান আসিফ মুনীর তন্ময়, শহীদসন্তান তানভীর হায়দার চৌধুরী শোভন, মানবাধিকারকর্মী তরুণ কান্তি চৌধুরী, মানবাধিকারকর্মী আনসার আহমদউল­া, মানবাধিকারকর্মী স্বীকৃতি বড়–য়া, ব্যারিস্টার নাদিয়া চৌধুরী, অধ্যাপক সুজিত সরকার, সমাজকর্মী হারুণ অর রশীদ, এডভোকেট কাজী মানছুরুল হক খসরু, ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া, সমাজকর্মী মোঃ আমিনুর জামান রিংকু, এডভোকেট মালেক শেখ, সহকারী অধ্যাপক তপন পালিত, সমাজকর্মী শিমন বাস্কে, সমাজকর্মী শেখ আলী শাহনেওয়াজ পরাগ, সমাজকর্মী সাইফ উদ্দিন রুবেল প্রমুখ।