সোলাইমানি হত্যার নিন্দা জানানোয় এই নারীর কারাদণ্ড

জিবিনিউজ 24 ডেস্ক //

আমেরিকার হাতে ইরানি জেনারেল কাসেম সোলাইমানির হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানানোর ‘অপরাধে’ কসোভোর একটি আদালত একজন মুসলিম নারীকে এক মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে।

মুসলিম নারী ইকবালে বেরিশা হুদুতি’কে এক মাসের কারাদণ্ড দেয়ার জন্য কসোভোর সরকারি কৌঁসুলি যে আবেদন করেন তা গ্রহণ করে প্রিস্টিনার ওই আদালত।তিন সন্তানের জননী হুদুতি কসোভোয় একটি ইসলামি-পন্থি সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা।

কসোভোর স্পেশাল প্রসিকিউশনের প্রধান ব্লেরিম ইসুফাজ দাবি করেছেন, ‘প্রকাশ্যে সহিংসতা উসকে দেয়া’র অপরাধে হুদুতিকে গত ৭ জানুয়ারি আটক করা হয়। তিনি বলেন, ওই নারী প্রতিশোধ নেয়ার ডাক দেয়ার পর তাকে আটক করার সিদ্ধান্ত নেই আমরা।

জেনারেল সোলাইমানিকে ইরান ও ইরাকের আরো কয়েকজন সামরিক কমান্ডারসহ গত ৩ জানুয়ারি বাগদাদ বিমানবন্দরের কাছে ড্রোন হামলা চালিয়ে হত্যা করে মার্কিন সন্ত্রাসী সেনারা। ওই পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডের একদিন পর হুদুতি তার ফেসবুক পেজে লেখেন, সোলেইমানি কখনো মরবেন না। তিনি আরো লিখেছেন, “আমেরিকা ইরান ও ইরাকের দু’জন শীর্ষস্থানীয় জেনারেলকে হত্যা করে মারাত্মক অন্যায় করেছে। আপনারা বাড়ির মালিককে হত্যা করে গোটা পরিবারকেই হত্যা করেছেন, কাজেই প্রতিশোধ অবশ্যম্ভাবী এবং এর কোনো সীমা থাকবে না।”

তিনি ফেসবুকে দেয়া আরেকটি পোস্টে লেখেন, “সন্ত্রাসী আমেরিকা ইরাকে আমাদের শিয়া-ভাই ও কমান্ডারকে হত্যা করেছে। সুতরাং যখনই আমরা আমেরিকার সন্ত্রাসী অপরাধীদের মুখোমুখি হবো তখনই আমাদেরকে সক্রিয় হতে হবে।”

ইকবালে বেরিশা হুদুতি অবশ্য পরে তার পোস্ট মুছে দিয়ে বলেন, স্থানীয় গণমাধ্যম তার বক্তব্যকে বিকৃত করে তুলে ধরেছে। এ ছাড়া, দ্বিতীয় পোস্টটি তার নয় বলেও দাবি করেন তিনি। হুদুতি বলেন, দ্বিতীয় ফেসবুক পোস্টটি এমন একটি একাউন্ট থেকে করা হয়েছে যেটি তিনি চালান না।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন