অনিশ্চয়তায় বেঙ্গল উচ্চাঙ্গসংগীত উৎসব

2,085
gb

অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েছে বেঙ্গল উচ্চাঙ্গসংগীত উৎসবের ষষ্ঠ আসর। গত পাঁচ বছরের ধারাবাহিকতায় আগামী নভেম্বরে এই উৎসবটি হওয়ার কথা। কিন্তু এখন পর্যন্ত উৎসবের ভেন্যু হিসেবে বাংলাদেশ আর্মি স্টেডিয়াম বরাদ্দ পায়নি আয়োজক প্রতিষ্ঠান বেঙ্গল ফাউন্ডেশন।

আয়োজক প্রতিষ্ঠানের মহাপরিচালক লুভা নাহিদ চৌধুরী বলেন, উৎসবের মাত্র এক মাস বাকি আছে। অথচ এখন পর্যন্ত আমরা উৎসবের ভেন্যু আর্মি স্টেডিয়ামের বরাদ্দ পাইনি। বিদেশী শিল্পীসহ দর্শকের নিরাপত্তা বিবেচনায় নিয়ে অন্য কোন ভেন্যুতে এ উৎসব করা সম্ভব না। মার্চের ৫ তারিখে ভেন্যুটি পাওয়ার জন্য আবেদন করেছিলাম সেনা ক্রীড়া নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের কাছে। উৎসবের জন্য ২০ থেকে ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত ভেন্যু চেয়েছিলাম।

তিনি আরো বলেন, এ অবস্থায় উৎসব আয়োজন নিয়ে আমরা অনিশ্চয়তায় রয়েছি। এ সপ্তাহের মধ্যে ভেন্যু বরাদ্দ না পেলে উৎসবটি বাতিল করা ছাড়া কোনো উপায় থাকবে না। এর আগে রাজনৈতিক অস্থিরতা, জঙ্গীবাদের হুমকির মাঝেও উৎসবটি হয়েছে। মাননীয় অর্থমন্ত্রী, সংস্কৃতিমন্ত্রীসহ সরকারের বিভিন্ন বিভাগের সর্বাত্মক সহযোগিতা পেয়েছি। ব্যক্তিগতভাবে আমি বিশ্বাস করি, উৎসবটি হবে।

এই অনুষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকা ব্লুজ কমিউনিকেশন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরহাদুল ইসলাম বলেন, উৎসবের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে বেঙ্গল ফাউন্ডেশন। উৎসবের সব রকম প্রস্তুতি রয়েছে আমাদের। আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, সবার নিরাপত্তা বিবেচনায় আর্মি স্টেডিয়াম ছাড়া অন্য কোন ভেন্যুতে উৎসব আয়োজন অসম্ভব।

বেঙ্গল ফাউন্ডেশন সূত্রে জানা গেছে, এবারের উৎসবে ভিন্নতা আনার জন্য তাজিকিস্তান থেকে একটি ওয়েস্টার্ন অর্কেস্ট্রা টিম আসার কথা রয়েছে। উৎসবটি যদি বাংলাদেশে এবার না হয় তবে আয়োজনটির শিল্পী ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকা ভারতীয় প্রতিষ্ঠান ‘পারফেক্ট হারমোনি গ্লোবাল’ অন্য কোন দেশে এর আয়োজন করবে। কারণ, ইতোমধ্যে শিল্পীদের শিডিউল নেয়া হয়ে গেছে।

উৎসবের বিষয়ে গণমাধ্যমকে বিস্তারিত জানাতে বুধবার সংবাদ সম্মেলনে ডেকেও পিছিয়ে দিয়েছে বেঙ্গল ফাউন্ডেশন। জানা গেছে, ১৮ অক্টোবরের পরিবর্তে ২২ অক্টোবর রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে অনুষ্ঠিত হবে এ সংবাদ সম্মেলন। সেদিনই জানা যাবে, এবার উচ্চাঙ্গসংগীত উৎসবের বিস্তারিত।

উল্লেখ্য, ২০১২ সাল থেকে বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের আয়োজনে প্রতি বছর অনুষ্ঠিত হচ্ছে উচ্চাঙ্গসংগীত উৎসব। নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হয় এ আসর। মানুষের মাঝে দারুণ সাড়া জাগিয়েছে উৎসবটি।