বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এড. মিসবাহ উদ্দিন সিরাজকে গণ সংবর্ধনা প্রদান

5,595
gb

হাকিকুল ইসলাম খোকন ||

গত রবিবার ২৪ শে সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় উডসাইডের গুলসান ট্যারেসে সিলেট বিভাগবাসীর পক্ষ থেকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রধানমন্ত্রীর সফর সঙ্গী এড. মিসবাহ উদ্দিন সিরাজকে এক বিশাল গণসংবধনা প্রদান করা হয়। বাংলাদেশ সোসাইটির সভাপতি কামাল আহমদের সভাপতিত্তে¡ এবং যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জালালাবাদ এসোসিয়েশ এর সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হাছিব মামুনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত এই সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য এস এম কামাল, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যান সম্পাদক শেখ মকলূ মিয়া, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক এড. সামছুল ইসলাম, এথলেট ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল রকিব মন্টু।


মাওলানা সাইফুল আলম সিদ্দিকীর পবিত্র কোরআন তেলোয়াত ও স্বীকৃতি বড়–য়ার ত্রিপিটক পাঠের মধ্য দিয়ে সভার সভার শুরু হয়। শুরুতেই প্রধান অতিথিকে ফুল দিয়ে অভিনন্দিত করেন মোঃ তুলন, খায়রুল ইসলাম খোকন, আব্দুর রশিদ রানা, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ, ল সোসাইটি, প্রবাসী ময়মনসিংহবাসী, শ্রমিক লীগ, স্বেচছাসেবক লীগ, মহানগর আওয়ামী লীগ, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগ সহ অন্যান্য সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। সমাবেশে বক্তব্য রাখতে গিয়ে সংবর্ধিত প্রধান অতিথি মসবাহ সিরাজ বর্তমান সরকারের সম্পাদিত উন্নয়ন মূলক কার্যক্রমগুলি তুলে ধরে আগামী নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে পুনরায় প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করার জন্য প্রবাসী সিলেট বিভাগবাসীর নিকট জোর আবেদন জানান। তিনি তার বক্তব্যে আরও উল্লেখ করেন যে জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী থাকায় দেশ আজ জঙ্গীমুক্ত ও সন্ত্রাসমুক্ত একটি মধ্যআয়ের দেশ। কৃষক শ্রমিক সহ সর্বস্তরের মানুষ আজ দেশে নিরাপদে সুন্দর সাবলীল জীবন যাপন করছে। বিশ্ব সম্প্রদায়ের নিকট বাংলাদেশ আজ মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত। প্রাকৃতিক দুর্যোগ কিংবা ষড়যন্ত্রকারীদের কোন ষড়যন্ত্র ও বাধা বিপত্তী বাংলাদেশের আগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করতে পারবে না। জনাব মিছবাহ সিরাজ আবেগময়ী কন্ঠে তার রাজনৈতিক জীবনের বর্ণনা দিয়ে ভবিষ্যতে একজন জনপ্রতিনিধি হিসাবে কাজ করার আগ্রহ ব্যক্ত করেন এবং প্রবাসীদের সহযোগীতা কামনা করেন। তিনি আরও উল্লেখ করেন যে দেশে যে হারে উন্নয়নের ছোয়া লেগেছে সেই হারে সিলেট বিভাগে উন্নয়ন হয় নাই। যার প্রধান কারন হলো দায়িত্ব প্রাপ্তরা যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছেন। তিনি প্রবাসী সিলেটবাসীর বিভিন্ন দাবী দাওয়া সমস্যা, বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রে আওয়ামী পরিবারের রাজনীতিতে প্রবাসী সিলেটবাসীর যথাযথ অবস্থান নিশ্চিত করতে সর্বাত্বক প্রচেষ্টা গ্রহন করবেন বলে সবাইকে আশ্বস্থ করেন।
বিশেষ অতিথি হিসাবে আরও বক্তব্য রাখেন জালালাবাদ এসোসিয়েশন এর সভাপতি বদরুল হুসেন খাঁন, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সৈয়দ বশারত আলী, যুগ্ম সম্পাদক আইরিন পারভীন, আব্দুর রহিম বাদশা, কাজী কয়েছ, হাজী এনাম, জাকারিয়া চৌধুরী, শাহিন আজমল, শেখ আতিকুল ইসলাম, খসরুজ্জামান খছরু, মিছবাহ আহমদ, ইমদাদ চৌধুরী, মুজাহিদুল ইসলাম, অধ্যাপিকা রানা ফেরদৌস, দেওয়ান শাহেদ, দুরুদ মিয়া, জুয়েল আহমদ, জামাল হুসেন, শিরিন আখতার দিবা, জুনেদ এ খান।
এছাড়াও আরও বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রদীপ রঞ্জন কর, মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী সহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নুরুল তালুকদার নাহিদ, মাসুদুল হক ছানু, তোফালেযল আহমদ, সুজন আহমদ সাজু, সাহান আহমদ টুটুল, সুব্রত তালুকদার, শিমুল হাসান, সেবুল মিয়া, ইফজাল চৌধুরী, হুমায়ুন চৌধুরী, আকমান হুসেন, সাগর মোহাম্মদ ছানু, সৌরভ সিরাজ সহ সিলেট বিভাগের অন্যান্য সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। সভায় বিপুল সংখ্যক প্রবাসীরা উপস্থিত ছিলেন। সভা শেষে সবাইকে নৈশ্যভোজের আপ্যায়িত করা হয়।