হান্নান শাহ একজন কালজয়ী দেশপ্রেমিক নেতা : গোলাম মোস্তফা

506
gb

মরহুম আ.স.ম হান্নান শাহকে একজন কালজয়ী দেশপ্রেমিক ও জাতীয়তাবাদী নেতা হিসাবে আখ্যায়িত করে বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেছেন, ‘সবার উপরে দেশ’- এই ছিল হান্নান শাহর রাজনৈতিক দর্শন। চলমান সংকটে তাঁর অভাব পূরণ হবার নয়।

বুধবার নয়াপল্টনস্থ যাদু মিয়া মিলনায়তনে আ.স.ম হান্নান শাহ’র প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তৃণমূল নাগরিক আন্দোলন আয়োজিত স্মরণ সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেছেন, বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদী রাজনীতির সাহসী এই সন্তান দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব, গণতন্ত্র রক্ষায় যে অবদান রেখেছেন জাতি তা শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে। ১/১১ প্রেক্ষাপটে জাতীয়তাবাদী শক্তি ও রাজনীতিবিদদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র প্রতিরোধে হান্নান শাহর সাহসী ভূমিকা সমগ্র জাতিকে এখনও অনুপ্রাণীত করে, আগামী দিনেও করবে।

তিনি আরো বলেন, হান্নান শাহ বিএনপির একটা স্তম্ভ ছিলো, জাতীয়তাবাদী শক্তির একটি প্রতীক ছিলো। তিনি দুর্দিনের একজন কান্ডারি ছিলেন। আ স ম হান্নান শাহ ছিলেন গণতন্ত্রের অকৃত্রিম সৈনিক। হান্নান শাহকে ফিরে পাবো না। কিন্তু তার যে দেখানো পথ, আদর্শকে ধারন করে চলতে হবে।

মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা বলেন, গণতন্ত্র পুনরায় ফিরিয়ে আনতে তার যে অভিষ্ট লক্ষ্য ছিল সেই অবরুদ্ধ গণতন্ত্র মুক্ত করে মানুষের অধিকার ফিরিয়ে দিতে কাজ করতে হবে। তিনি যে কাজগুলো শেষ করতে পারেননি, আমাদের শেষ করতে হবে।

সংগঠনের সভাপতি মুহম্মদ মফিজুর রহমান লিটনের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশগ্রহন করেন এনডিপি ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শামসুল আলম, জাতীয়তাবাদী নাগরিক দলের সভাপতি পীরজাদা সৈয়দ মুহম্মদ ওমর ফারুক, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনরে সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন, বন্ধু দলের ঢাকা মহানগর দক্ষিনের সভাপতি হানিফ মজুমদার, ছাত্রনেতা আহমেদ শাকিল প্রমুখ।