সময়মতো অফিসে আসেন না শৈলকুপা সরকারী কলেজের স্যারেরা

456
gb

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহের শৈলকুপা সরকারি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষসহ প্রভাষকদের অনুপস্থিতির ছবি স্যোসাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। রোববার সকাল ৯.২৩ মিনিটে শৈলকুপার এক সাংবাদিক তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিতে “ একদিন প্রায়দিন! শিরোনামে কয়েকটি ছবি পোস্ট করেন। ছবিতে দেখা যায় শৈলকুপা সরকারি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ ও প্রভাষকদের রুমে সাড়ে ৯টার সময়ও ফাঁকা। সকাল ৯টার মধ্যে সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের অফিসে প্রবেশের নির্দেশ থাকলেও শৈলকুপা সরকারি ডিগ্রি কলেজের ক্ষেত্রে এ নিয়ম পালন করা হয়না বলেও অভিযোগ। দীর্ঘদিন ধরেই কলেজটিতে নানা অনিয়ম চলে আসছে। এর আগে কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুস সোবহানের কারনে সরকারি বরাদ্দকৃত ছাত্র হোস্টেলটি সরকারি তালিকা থেকে বাদ পড়েছে বলে নানা মহল থেকে অভিযোগ তোলা হয়। রোববার সকাল ৯টা ২৩ মিনিটে শৈলকুপা সরকারি ডিগ্রি কলেজে দেখা গেছে কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মো: আব্দুস সোবহান তখনও অফিসে উপস্থিত হননি। পাশের শিক্ষক মিলনায়তনে বসে ছিলেন গণিত বিভাগের প্রভাষক তৈয়বুর রহমান তুহিন। সাংবাদিকদের বেরিয়ে আসার সময় প্রবেশদ্বারে দেখামেলে ম্যানেজমেন্ট বিভাগের প্রভাষক জহির রায়হানকে। এমন উপস্থিতির বিষয়ে পরিচ্ছন্নকর্মী শেফালী রানী’র নিকট জানতে চাইলে তিনি উত্তর দেন কলেজে উপস্থিতির এ চিত্র প্রায় নিত্যদিনের। উপস্থিত দুই প্রভাষক জানান, অধ্যক্ষ স্যার হয়তো পুরো বিষয়টি ভাল বলতে পারবেন, তাছাড়া নিয়মিত সকাল ৯টায় কলেজে শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারীদের উপস্থিতি সম্পর্কে তাঁরা কোন মন্তব্য করতে রাজি হন নি। ক্লাস রুটিনের অজুহাত দেখিয়ে দেরিতে কেউ কেউ আসলেও শিক্ষার্থীদের ভাষ্য যথা সময়ে কলেজে কোন স্যার আসেন না। এ ব্যাপারে কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুস সোবহানের ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন সিরিভ করেন নি।