রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশকে ভারতের পূর্ণ সমর্থন

275
gb

রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি ভারতের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। রাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে এক ফোনালাপকালে এ সমর্থনের কথা জানান সুষমা স্বরাজ। ফোনালাপ শেষে প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেসসচিব নজরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে এমনটা জানান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ফোনালাপকালে সুষমা স্বরাজ বলেন, রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বন্ধ ও বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরিয়ে নিতে দেশটির প্রতি দ্বিপাক্ষিক ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে চাপ সৃষ্টির চেষ্টা করছে ভারত সরকার। রোহিঙ্গা সমস্যা শুধু বাংলাদেশের নয়, এটি এখন আঞ্চলিক সমস্যা থেকে বৈশ্বিক সমস্যায় রুপ নিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ শুধুমাত্র মানবিক দিক বিবেচনা করে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছে। কিন্তু মিয়ানমারকে অবশ্যই রোহিঙ্গাদের সেদেশের নাগরিক হিসেবে স্বীকার করে নিতে হবে। আমরা রোহিঙ্গাদের অস্থায়ীভাবে বসবাসের জন্য জায়গা করে দিয়েছি। কিন্তু তাদের দীর্ঘমেয়াদী রাখা অবশ্যই বাংলাদেশের জন্য একটা সমস্যা হয়ে দাঁড়াবে।

শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের দলের নেতাকর্মী, সরকারের প্রশাসন রোহিঙ্গাদের আশ্রয়, খাদ্য ও চিকিৎসা দেওয়ার জন্য দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন।

ফোনালাপকালে প্রধানমন্ত্রীর সরকারী বাসভবন গণভবনে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূত হর্ষবর্ধন শ্রীংলা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্র বিষয়ক উপদেষ্টা গওহর রিজভী, মুখ্যসচিব কামাল আবদুল নাসের উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতকালে হর্ষবর্ধন শ্রীংলা রোহিঙ্গাদের জন্য পাঠানো ভারতের ত্রাণ সাহায্যের প্রথম চালানটি দেশে পৌঁছার বিষয়টি অবহিত করেন।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে ঘনিষ্ঠ মিত্র ভারতের ভূমিকা নিয়ে দেশের মানুষের মধ্যে নানামুখী আলোচনার মধ্যে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর এ ফোনালাপ অনুষ্ঠিত হলো। এর আগে রোহিঙ্গাদের জন্য ভারতের ত্রাণ সহায়তার প্রথম চালান কক্সবাজারে পৌঁছায়।