ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে ঘন্টার পর ঘন্টা যানবাহন চলাচলে চরম ভোগান্তি 

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধাঃ
সড়ক ও জনপথ বিভাগের চরম উদাসিনতায় ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের খোদ ধাপেরহাট বন্দরে ড্রেন নির্মান কাজে গাফিলাতির কারণে যানবাহন চলাচলে চরম ভোগান্তি অসহনীয় হয়ে উঠেছে।
গত শনিবার মধ্যরাত থেকে রোববার দুপুর পর্যন্ত মহাসড়কের ধাপেরহাট বন্দরের মাজার গেট পয়েন্টের ওইস্থানে ৮ টি বাস ৩ টি ট্রাকসহ ১১টি যানবাহনের চেসিস ভেঙ্গে পড়ায় সড়ক যোগাযোগ প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।রোববার বিকেল ৪ টা পর্যন্ত দীর্ঘ প্রায় ১৬ ঘন্টা ধরে বিকল যানবাহন গুলো ঘটনাস্থলে পড়ে থাকায় যানবাহনের যানজট আরো দূর্বিষহ হয়ে উঠে।
এসময় উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে ছেড়ে আসা দূরপাল্লার কোচ-ট্রাক,মাইক্রোবাস ও অন্যান্য যানবাহন ছাড়াও বিশেষ করে করোনার এইসময় এ্যাম্বুলেন্স সমূহ চলাচল অচল হয়ে পড়ে।
ফলে কোচ সমূহের যাত্রী সাধারণের অবর্ণনীয় দুর্ভোগ আরো চরমে উঠে।
সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়,ধাপেরহাট বন্দরের মাজার গেট সম্মুখে সড়কের উভয় পাশে ড্রেন নির্মানের কাজ চলছিল।নির্মান কাজের ফলে ড্রেনের নতুন গর্তর মাটি সমূহ উভয় পাশে জমাট হয়ে সড়ক আরো সঙ্কুচিত হয়ে পড়ে।একদিকে ঢিমেতালের নির্মান কাজের অগ্রগতি অপরদিকে গত কয়েকদিনের অবিরাম বৃষ্টিতে নির্মান কাজের স্থানটি যানবাহন চলাচল সম্পূর্ণ অনুপযোগী হয়ে পড়ে।
দীর্ঘ যানজটের এসময় যানজটে আটকেপড়া যানবাহন সমূহ পীরগঞ্জ মহাসড়ক থেকে সাদুল্লাপুরের মাদারগঞ্জ হাট হয়ে সাদুল্লাপুর উপজেলা সদরের জিরোপয়েন্ট এবং গাইবান্ধা জেলা শহরের গোডাউন রোড হয়ে পলাশবাড়ী দিয়ে দক্ষিনাঞ্চলের স্থান সমূহে প্রবেশ করছে।
এক্ষেত্রে ১০ মিনিটের পথ প্রায় দু’ঘন্টা সময় বেশি ব্যয় করছে।সেইসাথে ১৮ কি.মি.-এর স্থলে দ্বিগুণেরও বেশি ৪০ কি.মি. সড়ক পথ পাড়ি দিতে হচ্ছে। ভূক্তভোগি মহলের দৃষ্টিতে আপাতত: চলমান ভোগান্তির খানিকটা অবসান হলেও সমস্যার স্থায়ী সমাধান না হওয়ায় আবারো যানজটের সৃষ্টি হবার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে।তাদের ভাষ্য সমস্যার শেষ কোথায়।
সড়ক ও জনপথ বিভাগের এমন উদাসিন দায়সারা ঢিলেঢালা কাজের ফলে ধাপেরহাটের ওইস্থানে প্রতিদিন একের পর এক ভারী যানবাহন সমূহ আটকে পড়াসহ বিকল হয়ে পড়ায় সমস্যা হরদম লেগেই থাকছে।
চালক ও পথচারিদের অভিযোগ,সড়ক বিভাগের জনবল দায়সারা ইট-পাটকেল ফেলে চলে যায়। কিছু সময় যেতে না যেতেই সেই খানাখন্দের বিশাল বিশাল গর্তে পড়ে যে কোন সময় আবারো ঘটতে পারে ঘটনার পুনরাবৃত্তি।ঘটতে পারে বড় ধরনের কোন সড়ক দূর্ঘটনা।
উল্লেখ্য; যানজট নিরসনকল্পে ধাপেরহাট তদন্ত কেন্দ্র এবং হাইওয়ে পুলিশের যৌথ প্রচেষ্টায় রোববার বিকেল থেকে সড়ক যোগাযোগ পুনরায় চালু হলেও আবারো কখন বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে ভূক্তভোগি মহল এমন অজানা শঙ্কায় ভুগছেন।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন