৩ দফা সরকারি অনুদান আসলেও কুলাউড়া পৌর এলাকায় হাহাকার!

119
gb
4

 

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি::

পাবেন, ধৈর্য ধরেন, দিচ্ছি, দিব জনপ্রতিনিধিরা এমন আশ্বাস দিয়ে যাচ্ছেন দুস্থ ও কর্মহীন মানুষদের। এমন আশ্বাসে আশ্বাসে করনা পরিস্থিতির দুই সপ্তাহের অধিক সময় চলে গেলেও কুলাউড়া পৌরসভার হাজারও কর্মহীনদের অধিকাংশের কপালে জোটেনি খাদ্য সহায়তার অনুদান। ক্ষুধার জ্বালায় দিশেহারা কুলাউড়া পৌর এলাকার দুস্থ কর্মহীন মানুষেরা।করোনা পরিস্থিতিতে এই পর্যন্ত কুলাউড়া উপজেলায় ৩ ধাপে খাদ্য সহায়তা এসেছে ৩৫.৫০০ মে.টন চাল নগদ ১,৬৯,০০০ টাকা।মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছেন।
কুলাউড়া পৌর এলাকার দুস্থ ও কর্মহীন মানুষ পরিবার পরিজন নিয়ে টানা ১৭ দিন যাবত আসহায় দিনানিপাত করছেন।

কুলাউড়া পৌরসভা উপজেলা সদর তথা শহর এলাকা হওয়ায় এখানে দিন মজুর উপজেলার অন্যান্য এলাকার চেয়ে বহুগুণ বেশী।পরিবহন শ্রমিক, হোটেল শ্রমিক, ডেকোরেটার্স শ্রমিক, রিক্সা শ্রমিক, নির্মাণ শ্রমিক,বাজার শ্রমিক,দোকান কর্মচারী, ইত্যাদি পেশায় নিয়োজিত কুলাউড়া পৌর এলাকার হাজার হাজার মানুষ এখন কর্মহীন।

কুলাউড়া উপজেলায় ৩ দফা সরকারি খাদ্য সহায়তা আসলেও কুলাউড়া পৌরসভার দুস্থ কর্মহীন মানুষের মধ্যে ১দফা খাদ্য সহায়তা বিতরণ হয়েছে বলে জানিয়েছেন দুস্থরা।তাও আবার চাহিদার তুলনায় খুবই তুলনায় অপ্রতুল। জানা গেছে ইতিমধ্যে ওয়ার্ড প্রতি ১০/১২ জনের মধ্যে খাদ্য সহায়তা বিতরণ করা হয়েছে। কুলাউড়া পৌরসভার সচিব শরদিন্দু ভট্টাচার্য জানান-কুলাউড়া পৌর সভায় ২২০ টি পরিবারের মধ্যে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়েছে উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে।তিনি আরোও জানান,করোনা পরিস্থিতিতে কুলাউড়া পৌরসভার তহবিল থেকে ৮/৯ লক্ষ টাকার খাদ্য সহায়তা কর্মহীন ও দুস্থ মানুষের মধ্যে বিতরণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন