ব্রিটিশ নারী এমপিরাও যৌন হয়রানি ও ধমকির শিকার

109

জিবি নিউজ ২৪ ডেস্ক//

২০১৭ সালের নির্বাচনে রেকর্ডসংখ্যক নারী সাংসদ নির্বাচিত হয়েছিলেন ব্রিটেনে। তবে সেই সংখ্যা নামছে খুব দ্রুতই। গত সোমবারের পর থেকে এখন পর্যন্ত হাউস অব কমন্সের ছয় জন নারী সদস্য পদত্যাগ করেছেন। পদত্যাগের কারণ হিসেবে প্রায় প্রত্যেকেই যৌন হেনস্থা ও ভয়ভীতি প্রদর্শন ও নানা হুমকির কথা উল্লেখ করেছেন।

সম্প্রতি কনজারভেটিভ এমপি ও সংস্কৃতিমন্ত্রী নিকি মরগান পদত্যাগ করেন। পদত্যাগের পর তিনি জানান, আইনপ্রণেতা হতে গিয়ে তাকে আর তার পরিবারকে অনেক ত্যাগ স্বীকার করতে হয়েছে। কিন্তু আধুনিক এমপির জীবন সম্পর্কে তার যা ধারণা ছিল সেটি ঠিক নয়।

এর আগে স্থানীয় সময় গত মঙ্গলবার একটি চিঠি লিখে পদত্যাগ করেন লিবারেল ডেমোক্র্যাট মন্ত্রী হেইডি অ্যালানও। হেইডি মনে করেন, এমপি হওয়ার পর তার ব্যক্তিগত গোপনীয়তার অধিকার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তার মতে রাজনীতির নোংরা পরিবেশ এখনো নারীবান্ধব হয়নি। তিনি বলেন, ‘রাজনীতিতে থাকা প্রত্যেক নারীকেই নোংরা মন্তব্য আর হুমকিভরা ইমেইল পেতে হয়। রাস্তায় চিৎকার করেও এই সমস্যার সমাধান হয় না। আমার বাড়ির মানুষ এখন আমার জন্য আতঙ্কে থাকে।’

এদিকে বহুদিন ধরেই বৈষম্য, যৌন হেনস্থার অভিযোগ করছিলেন ব্রিটিশ নারী এমপিরা। কিন্তু এই বিষয়ে কোনো পদক্ষেপই নিচ্ছিল না সরকার। উপায় না দেখে নিজেরাই প্রতিবাদ করছেন। ছাড়ছেন পার্লামেন্ট।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন