নারায়ণগঞ্জে সফলভাবে ৪ দিন ব্যাপী আয়কর মেলার সমাপ্তি  ৩ কোটি ৪ লাখ টাকার রাজস্ব কর আদায় 

885
gb

সাইফুদ্দিন আহমেদ মোক্তার ||

নারায়ণগঞ্জে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে সফলভাবে শেষ হয়েছে চারদিন ব্যাপি আয়কর মেলা। কর অঞ্চল নারায়ণগঞ্জ আয়োজিত এ মেলার সমাপনী দিন পর্যন্ত মোট ৩ কোটি ৪ লাখ টাকা রাজস্ব কর আদায় হয়েছে। রিটার্ণ দাখিল হয়েছে সাড়ে চার হাজারেরও বেশি। গত বছরের তুলনায় এবার ৫০ শতাংশ রিটার্ণ দাখিল বেড়েছে বলে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চলের কর কমিশনার মো: রেজাউল করিম চৌধুরি। গত বছর আয়কর মেলায় আয়কর আদায় হয়েছিল ২ কোটি ১১ লাখ টাকা।

নারায়ণগঞ্জ ক্লাব কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত এ আয়কর মেলায় শনিবার বিকেল পাঁচটায় নির্ধারিত সময় অতিবাহিত হওয়ার পরও
ছিল কর প্রদানকারীদের উপচোপড়া ভীড়। ছুটির দিন হওয়া সত্ত্বেও শেষ দিনে কর আদায় হয়েছে এক কোটি টাকারও বেশি। ৪ হাজার ৩শ’ জনকে সেবা প্রদানসহ রিটার্ণ গ্রহণ করা হয়েছে ১৫৪২টি। এছাড়াও  ৮৭ জন করদাতার নতুন টিআইএন রেজিষ্ট্রেশন সহ অনলাইনে রিটার্ণ দাখিলের জন্য ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড গ্রহণ করেছেন আরো ৩৯ জন করদাতা।

বিকেল পাঁচটায় এক প্রেস ব্রিফিংয়ে নারায়ণগঞ্জ কর অঞ্চলের কর কমিশনার মো: রেজাউল করিম চৌধুরি বলেন, গত বছরের তুলনায় এ বছর আয়কর মেলায় ব্যাপক সাড়া পড়েছে। বিশেষ করে সরকারি বেসরকারি- চাকুরিজীবি ও ব্যবসায়ীরা মেলায় এসে সহজে নতুন টিআইন গ্রহন ও রিটার্ণ দাখিল করেছেন। এছাড়া আইনজীবিদের মাধ্যমেও  নারায়ণগঞ্জের ব্যবসায়ীরাও তাদের রিটার্ণ দাখিল করেছেন। গত বছর সেবাগ্রহণ করেছেন ১৩ হাজার, আর এ বছর সেবা গ্রহণ করেছেন ১৭ হাজার ৬শ’ জন। গত বছর রিটার্ণ আদায় হয়েছিল ২ হাজার ৩শ’ ৭২টি, আর এ বছর আদায় হয়েছে ৪ হাজার ৬শ’ ৪২টি। টিআইএন দেয়া হয়েছে ২৬৫টি ও অনলাইন রিটার্ণের জন্য পাসওয়ার্ড দেয়া হয়েছে ১১৭টি। যা শতভাগ সাফল্য বলে তিনি মনে করেন। তিনি জানান, আগামী ৯ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জ ক্লাব কমিউনিটি সেন্টারে আনুষ্ঠানিকভাবে জেলার শ্রেষ্ঠ কর প্রদানকারীকে পুরষ্কৃত করা হবে। ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার ওইদিন উপস্থিত থেকে পুরষ্কার বিতরণ করবেন।

চারদিন ব্যাপী এ আয়কত মেলার সমাপনী শেষে কর শিক্ষণ ফোরাম আয়োজিত কুইজ প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মধ্যে পুরষ্কার প্রদান করা হয়। প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করে নারায়ণগঞ্জ বালিকা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ফারিয়া ইসলাম। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে মোট ২৪ জন শিক্ষার্থী এ কুইজ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করে।