সুন্দরগঞ্জে মাদক ব্যবসায়ির বাড়িতে রহস্যজনক বাংকার

4,105
gb

ছাদকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা  ||

মাদক ব্যবসায়ি ও মামলার আসামি মোখলেছুর রহমান মোখলের শ্বশুর বাড়িতে রহস্য জনক একটি বাংকারের খোজ পাওয়া গেছে।
তার শ্বশুরের পরিত্যাক্ত বাড়িতে অনেকদিন থেকে তার বসবাস। শ্বশুর আবজাল হোসেন বে-সরকারি এক স্কুলে চাকরি করার কারনে সুন্দরগঞ্জ পৌর শহরে থাকেন।
আবজাল হোসেন সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের মনিরামকাজি (ইজারাদার পাড়া) গ্রামের মৃত মজিবর রহমানের ছেলে।
আসামি মোখলে সোনারায় ইউনিয়নের পশ্চিম বৈদ্যনাথ গ্রামের আবুল কাশেম ব্যাপারির ছেলে।
স্থানীয়রা জানান, পরিত্যাক্ত বাড়িতে সাধারণ কেউ আসে না। মোখলে প্রত্যেক রাতে আসে এবং সকালে বের হয়ে যায়।
রাতে অপরিচিত লোকদের আসতে দেখা যায়। কেউ কিছু বলতে সাহস পায় না স্থানীয় ইউপি সদস্য আঃ করিম ইজারাদারের নাতি জামাই বলে।
কিন্ত বৃস্পতিবার রাতে পুলিশ মোখলেকে গ্রেফতার করে নিয়ে গেলে শুক্রবার সকালে উৎসুক জনতা পরিত্যাক্ত বাড়িতে গেলে বাংকারটি দেখতে পায়।
পরে বিষয়টি জানা জানি হলে উৎসুক জনতার ঢল নামে ওই পরিত্যাক্ত বাড়িতে। মোবাইল ফোনে ইউপি সদস্য আঃ করিম ইজারাদারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। তার স্ত্রী রিভিস করে বলে উনি বাড়িতে নাই।
ওসি আতিয়ার রহমান বলেন মোখলে মাদক ব্যবসায়ি ও একাধিক মামলার আসামি। নিজেকে গোঁপন রাখতে এমনটা করেছে।