বরিশালে স্বামীর বাড়িতে নববধূর রহস্যজনক মৃত্যু

143
gb

বরিশালে স্বামীর বাড়িতে নববধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। নিহতের নাম সুস্মিতা সরকার (১৮)।

শনিবার রাতে নগরীর ২১ নম্বর ওয়ার্ডের ধোপাবাড়ির মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সুস্মিতা সরকার নগরীর নবগ্রাম রোড এলাকার স্বপন সরকারের মেয়ে। তিনি সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী।

এদিকে এ ঘটনায় সুস্মিতার স্বামী মাইনুল ইসলাম শান্তকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতাল থেকে আটক করেছে পুলিশ। তিনি নগরীর ধোপাবাড়ির মোড় এলাকার বাসিন্দা আলতাফ হোসেনের ছেলে।

স্থানীয় ও স্বামীর স্বজনরা জানান, ইসলাম ধর্মাবলম্বী ছেলে মাইনুল ইসলাম শান্তর সঙ্গে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী সুস্মিতা সরকারের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু তাদের এ সম্পর্ক দুই পরিবারের কেউ মেনে নেননি। আলাদা ধর্ম হওয়া সত্ত্বেও মাসখানেক আগে তারা বিয়ে করেন। তবে এ নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে বিরোধ চলছিল।

শনিবার রাতে পারিবারিক কলহের জের ধরে ধোপাবাড়ির মোড় এলাকায় স্বামীর বাড়িতে বসে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন সুম্মিতা। ওই সময় তার স্বামী শান্ত বাসায় ছিলেন না।

পরে স্বামী গুরুতর অবস্থায় সুস্মিতাকে উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে নিলে সেখানে জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

মডেল থানার এসআই সাইদুল হক বলেন, সুস্মিতাকে তার স্বামী শান্তই হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

খবর পেয়ে আমরা হাসপাতালে পৌঁছে সেখান থেকে তাকে আটক করি। শান্তর বক্তব্য অনুযায়ী সুস্মিতা আত্মহত্যা করেছেন।

তবে সুস্মিতার মৃত্যু নিয়ে রহস্য রয়েছে। তাই এটি আত্মহত্যা নাকি হত্যা সে বিষয়টি আমরা এখনও নিশ্চিত নই। ময়নাতদন্তে বিষয়টি বেরিয়ে আসবে। তা ছাড়া আটক শান্তকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন