পথচারীর কল্যাণে বেঁচে গেলেন তামিমরা

60

নিউজিল্যান্ডে ক্রাইস্টচার্চে মসজিদ আল নূরে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। এতে কমপক্ষে ৬ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অসংখ্যজন। তবে অল্পের জন্য বেঁচে গেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটাররা। সেখানে জুমার নামাজ আদায় করতে যাচ্ছিলেন তামিম ইকবাল, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলামরা। সঙ্গ দিতে সঙ্গে ছিলেন সৌম্য সরকারও।

প্রবেশের মুহূর্তে স্থানীয় এক পথচারী তাদের মসজিদে ঢুকতে নিষেধ করেন। বলেন এখানে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। এতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন খেলোয়াড়েরা। পরে দৌড়ে টিম বাসের মধ্যে ঢুকে যান এবং মেঝেতে শুয়ে পড়ে। খানিক পরই ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। তারা এখন হ্যাগলি ওভাল স্টেডিয়ামে অবস্থান করছেন।

তবে দলের কোচিং স্টাফ এবং দুই তরুণ সদস্য লিটন কুমার দাস ও নাঈম হাসান রয়েছেন টিম হোটেলেই। তাদের সেখানেই থাকতে বলা হয়েছে। দলের ম্যানেজার খালেদ মাসুদ পাইলট বলেন, সবাই নিরাপদে আছেন। কারো কোনো ক্ষতি হয়নি। আমি সার্বক্ষণিক বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছি।

স্থানীয় সময় দুপুর পৌনে ২টায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় কমপক্ষে ৬ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আনুমানিক ২০-৩০ জন। নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে।

ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভাল মাঠে শনিবার বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ডের তৃতীয় টেস্ট হওয়ার কথা রয়েছে। তবে এমতাবস্থায় ম্যাচটি গড়ানো নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। অবশ্য সেই ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক কোনো বিবৃতি দেয়নি নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড।

মন্তব্য
Loading...