প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছেন তাহিরপুর প্রেসক্লাবের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক এম. এ রাজ্জাক

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ||

131

২০১৯ সালের ১ ও ২ ফেব্রুয়ারী ক্রাইম সিলেট.কম, আমার সিলেট.কম, জিবি নিউজ২৪.কম, আমাদের সকাল ২৪.কম, বাংলাচোখ নিউজ এজেন্সি, লালমনিরহাট অনলাইন নিউজ.কম, স্বাধীন নিউজ২৪.কম, এবি নিউজ২৪.কম, এশিয়া খবর২৪.কম, নিউজ অফ বাংলাদেশ. নেট, ক্রাইম বাংলাদেশ নিউজ.কম, বিডি২৪ রিপোর্ট .কম সহ বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টালে সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ সোর্স গ্রেফতার : গডফাদার ধরাচোয়ার বাহিরে শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের একাংশের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন দৈনিক মানবজমিনের উপজেলা প্রতিনিধি ও তাহিরপুর প্রেসক্লাবের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক এম.এ রাজ্জাক।
প্রকাশিত একই সংবাদে উল্লেখ করা হয়েছে,“ তাহিরপুর উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের বালিয়াঘাট গ্রামের রাশিদ মিয়ার ছেলে কয়লা ও মাদক মামলা নং ১৫৮/০৭ এর আসামী ও চোরাচালানীদের গড ফাদার আব্দুর রাজ্জাক তার শিস্য মাদক ব্যবসায়ী কালাম মিয়াকে ইয়াবার চালান দিয়ে বৃহ্সপতিবার রাত ৮ টায় সুনামগঞ্জ থেকে তাহিরপুর সীমান্তে পাঠায়’ এবং জুয়ার বোর্ড বসিয়ে বিজিরি নামে চাদাঁ তোলার সময়ে বিজিবি হাতে আটক হয়েছে প্রকাশিত এ সংবাদের অংশ বিশেষের সঙ্গে তিনি ভিন্নমত পোষনসহ চ্যালেঞ্জ করে বলেছেন, বিজিরি হাতে আটককৃত ব্যাক্তিকে তিনি ইয়াবা দিয়ে সীমান্ত এলাকায় পাঠাননি। তার নামে থানায় কোন মামলা নেই। তিনি বিজিরি নামে চাঁদা তোলেননি এবং আটকও হননি। তিনি বলেন, আমি কোন চৌরাচালানী বা মাদক ব্যাসায়ীর সঙ্গে জড়িত নই। তিনি কোনদিন ধুমপানও করেননি। ব্যাক্তিগত আক্রোশে এসিড মামলার পলাতক আসামী মোজাম্মেল আলম ভুইয়া ও তার সহোদর চাদাঁবাজ জাহাঙ্গীর আলম একাধিক অনলাই নিউজ, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিস মিডিয়ার সাংবাদিক পরিচয়দানকারী প্রকাশিত ঐ সংবাদটিতে অসৎ উদ্দেশ্যে তার নাম জড়িয়েছে। তিনি ব্যাক্তিগত ভাবে কোন অপরাধের সঙ্গে জড়িত নন। বরং এসিড মামলার পলাতক আসামী মোজাম্মেল আলম ভুইয়াই একজন চিহ্নিত মদ্যপায়ী, হেরোইনসেবী, হেরোইন বিক্রেতা, পতিতার সর্দার হিসেবে সীমান্ত এলাকায় বেশ পরিচিত। সে পুলিশের ভয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ আত্মগোপনে থেকে একের পর এক এসব অনলাইনের মাধ্যমে স্বরযন্ত্র করে যাচ্ছে সাংবাদিক এম.এ রাজ্জাকের বিরোদ্ধে।
স্কুল ছাত্র শিপলু কে এসিড নিক্ষেপকারী মোজ্জাম্মেল আলম ভুইয়ার বিরোদ্ধে এসিড মামলা সহ তাহিরপুর থানায় একাধিক মামলা রয়েছে থানায়। মোজাম্মেল আলম ভুইয়া চাঁদাবাজি করতে গিয়ে বড়ছড়া, লাকমায়, তাহিরপুরে বেশ কয়েকবার গণধৌলায়ের শিকার হয়েছে সে। তাকে পুলিশ হন্য হয়ে খুজঁছে। মোজাম্মেলের চাদাবাজি ও সাইবার সন্ত্রাসের কারণে সীমান্ত এলাকা সহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ অতিষ্ট হয়ে পড়েছে।

মন্তব্য
Loading...