আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতি ২ সপ্তাহ পর জ্ঞান ফিরেছে সড়ক দূর্ঘটনায় আহত স্কুল ছাত্র সাব্বিরের

146
gb

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ||

সড়ক দূর্ঘটনায় আহত স্কুল ছাত্র সাব্বিরের ২ সপ্তাহ পর জ্ঞান ফিরেছে। নড়াচড়া করছে, এমন কি উঠে বসারও চেষ্টা করছে। শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হওয়ায় সুস্থ্যতা নিয়ে আশার আলো দেখছেন কর্তব্যরত চিকিৎসকরা। এদিকে দূর্ঘটনার এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিয়েছে সাব্বিরের পরিবার। অপর দিকে তার চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান অব্যাহত রয়েছে। মঙ্গলবার সকালে তার পিতা মুনছুর আলী সরদারকে ৫ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা দেন পাইকগাছা সরকারি কলেজের রোভার স্কাউটস। অনুরূপভাবে ১ হাজার টাকা সহায়তা দেন লোনাপানি কেন্দ্রের উপ-পরিচালক নিলুফা বেগম। উলে­খ্য, গত ৯ জানুয়ারী উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিসের সামনে ঈগল পরিবহনের সাথে মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় আহত হয় পাইকগাছা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী ও ভিলেজ পাইকগাছা গ্রামের দিন মজুর মুনছুর সরদারের ছেলে সাঈদ মুনতাসির সাব্বির। গত ২ সপ্তাহ তাকে আইসিইউ’তে রাখা হয়েছে। প্রথম দিকে গাজী মেডিকেল ও পরবর্তীতে তাকে আবু নাসের হাসপাতালে স্থান্তর করা হয়। প্রায় ২ সপ্তাহ অচেতন থাকায় তার সুস্থ্যতা নিয়ে শঙ্কা দেখা দেয়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল হোসেন সেখ জানান, আমি সোমবার আইসিইউ’র দায়িত্বরত চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলেছি। ডাক্তার বলেছেন সোমবার থেকে তার শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। যে চোখটাই বেশি আঘাতপ্রাপ্ত হয়, সেই চোখে সে এখন অনেকটা স্বাভাবিকভাবে তাকাচ্ছে। পাশাপাশি নড়াচড়া করছে, এমনকি উঠে বসারও চেষ্টা করছে। সকলের দোয়ায় সাব্বিরের সুস্থ্যতা নিয়ে আমরা সবাই এখন আশার আলো দেখছি। তবে তার চিকিৎসার জন্য প্রচুর অর্থের প্রয়োজন এ জন্য সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহŸান জানান প্রধান শিক্ষক আবুল হোসেন। এদিকে দূর্ঘটনার এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট পরিবহন কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্ষতিগ্রস্থ সাব্বিরের পরিবার। সাব্বিরের পিতা মুনছুর আলী সরদার বাদী হয়ে মঙ্গলবার থানায় এজাহার দায়ের করেছেন বলে সাব্বিরের নিকট আত্মীয় সিরাজুল ইসলাম জানিয়েছেন।

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More