মে’র পাশে দাঁড়ালেন ব্রেক্সিটপন্থি দুই মন্ত্রী

201
gb

জিবি নিউজ 24 ডেস্ক//

ব্রেক্সিট চুক্তির বিরোধিতায় যুক্তরাজ্যে এমপি’দের নতুন নেতৃত্বের দাবি জোরোলো হতে থাকার মধ্যেই প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে’র পাশে দাঁড়িয়েছেন শীর্ষ দুই ব্রেক্সিটপন্থি মন্ত্রী।
এদের একজন হচ্ছেন, পরিবেশমন্ত্রী মাইকেল গভ এবং অপরজন আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমন্ত্রী লিয়াম ফক্স।

মে’র প্রতি পূর্ণ আস্থা প্রকাশ করেছেন মাইকেল গভ। তিনি ভবিষ্যতে একটি সঠিক চুক্তির জন্য মনোনিবেশ করা জরুরি বলে মত দেন।

অন্যদিকে, মে’র খসড়া ব্রেক্সিট চুক্তিকে সমর্থন করার জন্য এমপি’দেরকে আহ্বান জানিয়েছেন লিয়াম ফক্স। তিনি বলেন, “কোনো চুক্তি না হওয়ার চেয়ে বরং একটি চুক্তি থাকা ভাল।”

মে বুধবার ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার (ব্রেক্সিট) খসড়া চুক্তিতে মন্ত্রিসভার অনুমোদন পেলেও কয়েকঘণ্টার মধ্যেই সব উল্টে যায়।

বৃহস্পতিবার পদত্যাগ করেন ব্রেক্সিট মন্ত্রী ডোমিনিক র‌্যাব। এর এক ঘণ্টা পরই কর্মসংস্থান ও পেনশন বিষয়ক মন্ত্রীর পদত্যাগসহ আরো কয়েকজন প্রতিমন্ত্রীর পদত্যাগে মন্ত্রিসভায় বড় ধরনের বিপর্যয় ঘটে।

মে’র নেতৃত্বে অনাস্থা প্রকাশ করে ভোটের দাবি জানিয়ে চিঠিও দেওয়া শুরু করেন এমপি’রা। টোরি দলের আরো অনেক এমপি’ই এখনো মে’র নেতৃত্বে অসন্তোষ প্রকাশ করে আস্থা ভোটের দাবি জানাচ্ছেন। এ পরিস্থিতির মধ্যেই দুই মন্ত্রীর সমর্থন পেলেন মে।

বিবিসি সাংবাদিক লরা কুয়েন্সবার্গ বলেছেন, এ পর্যন্ত প্রায় ২০ টোরি এমপি ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী মে’র ওপর অনাস্থা প্রকাশ করে চিঠি দেওয়ার কথা প্রকাশ্যেই জানিয়েছেন।

কনজারভেটিভ পার্টির নিয়মানুযায়ী, দলের ব্যাকবেঞ্চ ১৯২২ কমিটিতে ৪৮ জন এমপি অনাস্থা জানিয়ে চিঠি পাঠালেই টেরিজা মে’র বিরুদ্ধে ভোট অবশ্যম্ভাবী হয়ে পড়বে।

সাবেক ব্রেক্সিটমন্ত্রী স্টিভ বেকার বিবিসি টিভি কে বলেছেন, মে’র বিরুদ্ধে কয়টি চিঠি জমা পড়েছে তা তিনি নিশ্চিতভাবে না জানলেও তার ধারণা সেটি ৪৮ এর কাছাকাছিই হবে। ফলে আস্থা ভোট আসন্ন।