অবৈধ ভোটার সন্নিবেশ ও অনিয়মের অভিযোগ তুলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ঠিকাদার সমিতি’র পূণ:নির্বাচন দাবী

66

জাকির হোসেন পিংকু,চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:

অবৈধ ভোটার সন্নিবেশন ও অনিয়মের অভিযোগ এনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ঠিকাদার সমিতি’র নির্বাচনের ফলাফল বাতিল করে পূণ:নির্বাচন দাবী করেছেন নির্বাচনে সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দিতাকারী ইকবাল হোসেনসহ কয়েকজন প্রতিদ্বন্দিতাকারী ও ঠিকাদারগণ। গত ৮ সেপ্টেম্বের নির্বাচন অনুষ্ঠানের পর গত বুধবার (১২সেপ্টেম্বর) দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ ও দাবী তোলা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন লিখিত আপত্তি উথথাপনকারী ইকবাল হোসেন ও ক্রীড়া সম্পাদক পদপ্রার্থী এন. কোলারইশি সহ এই প্যানেলে সদস্য পদে বিজয়ী আবুল কালাম আজাদ, ঠিকাদার আব্দুস সবুর প্রমুখ। ঠিকাদার সমিতির আহব্বায়ক কমিটি ও নির্বাচন কমিটির বিরুদ্ধে এরা গঠনতন্ত্র লংঘন করে ৬০/৭০ জন অবৈধ ভোটার সন্নিবেশনের অভিযোগ তোলেন। এ ব্যাপারে নির্বাচনী আপীল বোর্ডের নিকট নির্বাচনী শিডিউল অনুযায়ী আপত্তি দাখিল করা হয়েছে বলেও তাঁরা জানান। অভিযোগকারীরা সুনির্দিষ্টভাবে বেশকিছু অবৈধ ভোটার চিহ্নিত করতে পেরেছেন বলেও জানান।ওইসব ভোটারের যথেষ্ট বৈধ কাগজপত্র নেই বলে তাঁরা দাবী করেন। নির্বাচন চলাকালীন ওইসব ভোটারের ব্যাপারে ও তাঁদের মাধ্যমে কারচুপির বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায় বলে ঠিকাদাররা অভিযাগ করেন। নির্বাচনের খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ কিংবা নির্বাচনের আগে কেন প্রতিবাদ কিংবা নির্বাচন বয়কট করা হয়নি,সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ঠিকাদাররা জানান,নির্বাচনের আগে থেকেই বারবার বিষয়টি মৌখিকভাবে বলা হলেও নির্বাচন কমিশন এতে পাত্তা দেয়নি। এ ব্যাপারে নির্বাচনী আপীল বোর্ডের প্রধান মশিবুর রহমান সাংবাদিকদের জানান,এসব আপত্তির ব্যাপারে নিয়মতান্ত্রিক তদন্ত ও শুনানীর পরই পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। উল্লেখ্য, গত ৮ সেস্টেম্বর ঠিকাদার সমিতির নিজস্ব ভবনে ৭৪৬জন ভোটারের অংশগ্রহণে দিনব্যাপী সমিতির ২০১৮-২০ মেয়াদের দ্বিবার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ভোট গনণার পরে গভীর রাতে প্রাথমিক ফলাফল ঘোষণা করা হয়। নির্বাচনে ১৫টি নির্বাহী কমিটি পদের বিপরীতে ৩টি প্যানেলে ৪৩ জন সহ ৪৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করেন। ##

মন্তব্য
Loading...