ব্রিটেনে বৈধভাবে প্রবেশে জাল নথি তৈরির অভিযোগে গ্যাংক সদস্যদের জেল

384
gb

জিবি নিউজ 24 ডেস্ক //

যুক্তরাজ্যের বাইরে থেকে স্বামী বা স্ত্রীকে আনতে জাল নথি পত্র তৈরিতে সহযোগিতা করার অভিযোগে এক গ্যাং সদস্যদের জেল দেন্ড দেয়া হয়েছে।
কার্ডিফ, নিউপোর্ট ও মেথিয়ার টাইডফিল এলাকার ৭ পুরুষ ও ৩ মহিলা সদস্য গত ৩ আগস্ট শুক্রবার কার্ডিফ ক্রাউন কোট এই জেল দন্ড দেয়।
উক্ত গ্যাং চক্র ১৮হাজর ৬০০ পাউন্ডের বেশি কাজের ফেইক পে স্লিপ বানিয়ে ব্রিটিশ নাগরিক যাদের স্ত্রী কিংবা স্বামী ব্রিটেনের বাইরে তাদের আনতে মিথ্যা ডুকেন্টের আশ্রয় নিতে সহায়তা করে।
ইমিগ্রেশন কর্মকর্তা নিক জাম্প তাদের কে ‘অর্গানাইজড ক্রিমিনাল এন্টারপ্রাইজ’ বলে অভিহিত করেন।
ইমিগ্রেশন এনফোর্সমেন্ট ক্রিমিনাল এন্ড ফাইন্যান্সশিয়াল ইনভেস্টিগেশন টিম দুই বছর তদন্তের পর এই চক্রের ১০ সদস্যকে গ্রেফতার করে।
কোর্টে বলা হয় এই জাল নথিপত্র তারা সাড়ে ৪হাজার পাউন্ড পর্যন্ত করে বিক্রি করেন। এতে জানানো হয় এই চক্রের লিডার দত্ত সরমা (৫৬) একটি ব্যাংক একাউন্ট খুলে স্পন্সরদের মাসিক বেতনের বড় একটি অংশ রাখতে বলেন। পরবর্তীতে তাদের ভিসা হলে ফি বাদে তাদের অর্থ ফিরিয়ে দেয়া হবে বলে বলা হয়।
হোম অফিসের নিয়ম হচ্ছে যদি কোন ব্রিটিশ নাগরিক তার স্ত্রী বা স্বামীকে ব্রিটেনের বাইরে থেকে আনতে চান তবে তাকে বছরে ১৮ হাজার ৬০০ পাউন্ড ইনকাম দেখাতে হবে।
২০১৩ সালে সারমাকে আন্ডারকাভার জয়েন্ট পুলিশ অফিসাররা জিজ্ঞাসাবাদ করে। তারা তার ফোনের কিছু ম্যাসেজের সূত্র ধরে আগায় এবং ২০১৬ সালে পুরো গ্যাং সদস্যদের আটক করে।
এদের মধ্যে মোহাম্মদ উদ্দিন, সারা ব্রেন্ডলি, আব্দুল মুকিত, সুলিজা বেগম, জাকিয়া বেগম, এবং জাগদিপ সিংগকে অবৈধভাবে ব্রিটেনে প্রবেশে তাদের স্ত্রী কিংবা স্বামীকে ফেইক ডকুমেন্ট তৈরির অভিযোগ আনা হয়।