সাতক্ষীরায় একমাসে ২৩ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু

300
gb

এম.শাহীন গোলদার, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি:
সাতক্ষীরায় গত একমাসে (মার্চ) একজন খুনসহ ২৩টি অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। মার্চ মাসে সাতক্ষীরায় খুন হয়েছেন একজন। লাশ উদ্ধার হয়েছে ৭ জনের। সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেছে ১০ জনের,পানিতে ডুবে মারা গেছে ৩টি শিশুর। বজ্রপাতে নিহত হয়েছেন একজন এবং বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মারা গেছেন একজন। এ সময় জেলায় চুরির ঘটনা ঘটেছে কমপক্ষে ২০টি। সুন্দরবনে মাছধরা জেলে অপহরণের ঘটনা ঘটেছে বেশ কয়েকটি। এছাড়া ধর্ষণ ও ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনাও ঘটেছে বেশ কয়েকটি। নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনাও রয়েছে একাধিক।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রমতে জানা যায়,গত পয়লা মার্চ তালা উপজেলার জেয়ালা ঘোষপাড়া এলাকা থেকে পুলিশ ২-৩ দিন বয়সী এক নবজাতক শিশুর লাশ উদ্ধার করে। স্থানীয়দের ধারণা শিশুটিকে কে বা কারা হত্যার পর লাশ ফেলে রেখে যায়। ১০ মার্চ কালীগঞ্জের কালিন্দি নদী থেকে পুলিশ অজ্ঞাত এক যুবকের লাশ উদ্ধার করে। পুলিশের ধারণা হত্যার পর লাশটি নদীতে ভাসিয়ে দেয় ঘাতকরা। ১৪ মার্চ জেলার কালীগঞ্জের কৃষ্ণনগরে স্ত্রী নাছিমা খাতুনকে (৩৫) গলা কেটে হত্যার পর পুলিশের কাছে স্বেচ্ছায় ধরা দেয় স্বামী জালাল উদ্দিন সানা।
এদিকে ৭ মার্চ তালা উপজেলার ইসলামকাটি থেকে পুলিশ উদয় হালদার (৩৫) নামের এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে। এরপর ১৫ মার্চ সীমান্তের কোমরপুর থেকে পুলিশ মোহন দাস (৬০) নামে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে। ১৮ মার্চ একই উপজেলার খলিলনগর ইউপির ফতেপুর থেকে পুলিশ শিখা দাস (১৯) নামের এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে।
২৫ মার্চ শহরের আমতলা এলাকা থেকে মাসুম বিল্লাহ (৩০) নামের এক ব্যক্তির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। একই দিন সদর উপজেলার আলিপুর থেকে পুলিশ সেলিম নয়ন (১৮) নামে এক কিশোরের লাশ উদ্ধার করে।
এদিকে ৭ মার্চ সড়ক দুর্ঘটনায় কলারোয়ায় আব্দুল্লাহ (১৬) নামের এক শিক্ষার্থী এবং কালিগঞ্জে মিজানুর রহমান (১৬) নামের এক দশম শ্রেণির ছাত্র নিহত হয়। ২০ মার্চ জেলার পাটকেলঘাটার ভৈরবনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারায় ৬ জন।
নিহতরা হলেন-কালিগঞ্জ উপজেলার কালিয়াকর গ্রামের মনিরুজ্জামানের মা আকলিমা খাতুন, ছেলে আশিকুজ্জামান (১২) ও মেয়ে মিম (৩)। একই গ্রামের নুর বানু, সাইদুল ইসলাম ও সাব্বির হোসেন। ২৩ মার্চ তালায় সড়ক দুর্ঘটনায় পরিতোষ দেবনাথ (৭৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হন। ২৫ মার্চ পাটকেলঘাটার ভৈরবনগর এলাকায় রুহুল কুদ্দুস (৪০) নামের এক ব্যক্তি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন।
অন্যদিকে ৯ মার্চ কালিগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে আব্দুর রউফ (৫৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। ১২ মার্চ বজ্রপাতে নিহত হয় একই উপজেলার ঝর্ণা রাণী ঘোষ নামের এক গৃহবধূ। ১৩ মার্চ শ্যামনগরে পানিতে ডুবে প্রাণ হারায় মিষ্টি ও মরিয়ম নামে দুই শিশু। ২০ মার্চ তালার তেতুলিয়ায় পানিতে ডুবে মারা যায় রায়হান হোসেন নামে দুই বছর বয়সী শিশু।
এদিকে মার্চ মাসে তালায় সাত বছরের শিশু ধর্ষণসহ বেশ কয়েকজন শিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছে। কালিগঞ্জে গাছের সাথে বেঁধে মাহফুজা খাতুন (৩০) নামের এক নারীকে নির্যাতনের ঘটনাও ছিলো আলোচিত। এ সময়ের মধ্যে জেলায় কমপক্ষে ২০টি চুরির ঘটনা ঘটে। মাদক ও চোরাচালানের অভিযোগে আটক হয়েছেন বেশ কয়েকজন। ৩০ ভরি সোনার গহনা চুরির অভিযোগে আটক হয় কলারোয়ার কাকডাংগা এলাকার সাজেদা খাতুন (৪০) ও তার মেয়ে সুমি (১৮)। ৮০০ পিস ইয়াবাসহ আওয়ামী লীগ নেতা মইজুদ্দিনকে আটক করে সদর থানার পুলিশ।
৮ মার্চ শ্যামনগর থানার পুলিশের গাড়ীতে হামলার ঘটনাও আলোচিত হয়। এ ঘটনায় আটকও হয় দু’জন। গত মার্চ মাসে সুন্দরবনে ছোট ভাই বাহিনী ও দাদা বাহিনীর হাতে অপহরণ হয় অন্তত ২১ জন মাছধরা জেলে। মুক্তিপণ দিয়ে ফিরে এসেছেন ৮ জন। বনদস্যুদের ডেরায় আটক রয়েছেন বাকী জেলেরা। এছাড়া বন আইন না মেনে চলার দায়ে এ সময় আটক হয়েছেন অন্তত ১০ জন জেলে। উদ্ধার হয়েছে জবাই করা হরিণের মাংস ও মাথাসহ চামড়া।
গত ২৭ মার্চ ভোমরা সীমান্তে ১০ লাখ ৫০ হাজার টাকাসহ গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আলিমুদ্দিন নামে এক ব্যক্তি বিজিবির হাতে আটক হয়। এর আগে ৮ মার্চ ভোমরা সীমান্ত থেকে ২ কেজি সোনাসহ আটক হয় দু’জন। ১১ মার্চ পদ্মশাখরা সীমান্ত থেকে ৫ পিস সোনার বারসহ আটক হয় হাসানুর রহমান (২৩) নামে এক ব্যক্তি।
সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার সাজ্জাদুর রহমান জানান, দু’একটি বিছিন্ন ঘটনা ছাড়া জেলায় আইনশৃঙ্গলা পরিস্থিতি আগের চেয়ে ভালো। যেহেতু সাতক্ষীরা সীমান্তবর্তী জেলা হওয়ার কারণে অপরাধ প্রবণতা যাতে বাড়তে না পারে সেজন্য আইনশৃঙ্গলা বাহিনী নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, অপরাধ করে কেউ ছাড় পাবে না।