জার্মান আওয়ামী যুবলীগের উদ্যোগে স্বাধীনতা দিবস পালন

1,759
gb

জিবিনিউজ ডেস্ক::

জার্মান আওয়ামী যুবলীগের উদ্যোগে শনিবার জার্মানির বাণিজ্যিক নগরী ফ্রাঙ্কফুর্টে মহান স্বাধীনতা দিবস পালন করা হয়।
অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন জার্মান যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সোহেল। এরপর জাতীয় সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে শুরু হয় আলোচনা পর্ব। জার্মান আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি আমানউল্লাহ ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জার্মান আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি সৈয়দ সেলিম। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জার্মান আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কায়সারুল আলম।
স্বাধীনতা দিবসের আলোচনায় বক্তাগণ বলেন, ১৯৭১ সালের এই মাসে বাঙ্গালী জাতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বাধীনতার ডাকে ঝাঁপিয়ে পড়ে বাংলাদেশ নামের একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের জন্ম দিয়েছিল। আর বাংলাদেশকে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার জন্য প্রাণপণ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বঙ্গবন্ধু তনয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কিন্তু একটি অশুভ শক্তি ও তাদের দোসররা নানা কৌশলে বাংলাদেশের উন্নয়নের রূপরেখাকে নস্যাৎ করার জন্য নানাভাবে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের এসব ব্যর্থ চেষ্টাকে বানচাল করতে বক্তারা মুজিব সৈনিকদের সব ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে মজবুত করার আহ্বান জানান।
টেলিকনফারেন্স বক্তৃতায় বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ডঃ সাজ্জাদ হায়দার লিটন বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে মার্চ মাসের গুরুত্ব সবচেয়ে বেশী। এই মাসেই বাংলাদেশের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম। তাঁর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ ছিল বাংলাদেশের স্বাধীনতার প্রেক্ষাপটের সূচনালগ্ন। আবারও ২৬শে মার্চ বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস। তাই এই মাসে বাংলাদেশের উন্নয়নের মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নের রূপকার বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তর্জাতিক শান্তি মডেল বাস্তবায়নে ঐক্যবদ্ধভাবে সহযোগিতার আহ্বান জানান তিনি।
এছাড়া দেশে ও দেশের বাইরে আওয়ামী যুবলীগসহ দলের সকল শাখার কর্মকাণ্ডকে আরও মজবুত করার আহ্বান জানান আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের নেতৃবৃন্দ।
জার্মান আওয়ামী যুবলীগের সহ-সভাপতি আশরাফুল হোসাইন টিপু এবং সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সোহেলের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জার্মান আওয়ামী লীগের সিনিয়র উপদেষ্টা ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মহসিন হায়দার মনি, ইউরোপীয় আওয়ামী লীগের প্রবাসী কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী হাসনাত মিয়া, জার্মান আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম পুলক, জার্মান আওয়ামী লীগ নেতা হাফিজুর রহমান আলম, শেখ রাসেল শিশু কিশোর পরিষদ, জার্মান শাখার সভাপতি কাইয়ুম চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা নোমান হামিদ, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি মাহফুজ ফারুক, জার্মান আওয়ামী লীগের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক কাজী আসিফ হোসেন দীপ, যুবলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা ইসমত আরা আহসান, প্রচার সম্পাদক সামিউর রহমান এবং ফ্রান্স যুবলীগ নেতা মিজানুর রহমান।
পরিশেষে অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে উদ্দীপনামূলক দেশের গান পরিবেশন করেন ইউরোপের জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী আব্দুল মুনিম এবং পলি সেলিম। কবিতা আবৃত্তি করেন কবি ও আঁকিয়ে মীর জাবেদা ইয়াসমিন ইমি, নিগার সুলতানা, হাফিজুর রহমান আলম এবং কবি হোসাইন আব্দুল হাই।