জন্মস্থানের ঋন শোধ করতে চুনারুঘাটের উন্নয়নে ছুঠে আসি -সাংবাদিক সফিকুল ইসলাম লুতু

1,042
gb

এম এস জিলানী আখনজী, চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি ॥

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলা মেম্বার সমিতির আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। আজ (১৮’ই মার্চ) রবিবার দুপুর ১২ ঘটিকার সময় বীরমুক্তিযোদ্ধা এনামুল হক মোস্তফা শহীদ অডিটরিয়ামে উপজেলা মেম্বার সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি সদস্য দুলাল ভূঁইয়ার সঞ্চালনায় ও উপজেলা মেম্বার সমিতির সভাপিত ও ইউপি সদস্য মোঃ আঃ মালেকের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ঢাকাস্থ চুনারুঘাট উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি ও দৈনিক আজকের পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক মোঃ শফিকুল ইসলাম (লুতু)।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ঢাকাস্থ চুনারুঘাট উন্নয়ন ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইবনে জামান (শামসু), সাবেক উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আবিদা খাতুন, মিরাশী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী মাষ্ঠার, চুনারুঘাট বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাসুদ আহমেদ, চুনারুঘাট উপজেলা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি সাংবাদিক আব্দুর রাজ্জাক রাজু, উপজেলা মেম্বার সমতিরি সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ চান্দ আলী, ১নং গাজীপুর ইউপি সদস্য মোঃ কাজল মিয়া, ৩নং দেওরগাছ ইউপি সদস্য মোঃ রজব আলী, ৪নং পাইকপাড়া ইউপি সদস্য মোঃ মাহফুজ চৌধুরী, ৮নং সাটিয়াজুড়ী ইউপি সদস্য মোঃ জসিম উদ্দিন, ৯নং রাণীগাঁও ইউপি সদস্য মোঃ মিজানুর রহমান, ১০ নং মিরাশী ইউপি সদস্য মানিক মিয়া ও ১নং গাজীপুর ইউনিয়নের মহিলা সদস্যা মিনারা খাতুন প্রমূখ। উক্ত সভায় শহীদ আলহাজ্ব আবুল হোসেন আকল মিয়ার স্বরণে ১মিনিট দাড়িয়ে নীরবতা পালন করা হয়। সভায় প্রধান অতিথি বিশিষ্ট সাংবাদিক মোঃ শফিকুল ইসলাম (লুতু) বলেন শুধুমাত্র নির্বাচন করার উদ্দ্যেশে নয়, জন্মস্থানের ঋন শোধ করতে চুনারুঘাটের উন্নয়নে বার-বার ছুঠে আসি। যতদিন বেঁচে থাকব চুনারুঘাটের উন্নয়নে কাজ করে যাব। তিনি চুনারুঘাট মেম্বার সমিতির উন্নয়নের জন্য ১লক্ষ ১টাকা অগ্রীম অনুদানের ঘোষনা করেন। মেম্বার সমিতির সভায় বক্তারা বলেন চুনারুঘাট বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি শহীদ আলহাজ্ব আবুল হোসেন আকল মিয়া হত্যাকান্ডে সঠিক ও সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে খুনিদের চিহ্নিত করে ফাসি দেয়া হোক। পরে চুনারুঘাট পৌর শহরে এক বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিল শেষে চুনারুঘাট মধ্যবাজারের গোলচত্তরে এক পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। পথ সভায় মেম্বার সমিতির নেতারা বলেন খুনিদেরকে বাহির করে আইনের অওতায় আনার আগ পর্যন্ত এরকম কর্মসূচী আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। প্রয়োজনে বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দেয়া হবে।