যারা এতিমের টাকা লুট করে, বিচারের মাধ্যমে তাদের স্থান কারেগারেই হয়ডেপুটি স্পীকার

211
gb

 

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা

বিএনপি-জামায়াতের হুঙ্কারেজনগন ভিত নয়। ছাত্র যুব ঐক্য পরিষদ আয়োজিত আজকের এই জমায়েততা প্রমাণ করে। ইতিপূর্বে তারা জ্বালাও-পোড়াও আর মানুষ হত্যা করেগণ মানুষের ভোটের অধিকার হরণ করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছে। তারামনে করেছিল দেশে অরাজকতা সৃষ্টি করে অবৈধভাবে ক্ষমতা কেড়েনিয়ে এদেশে আবারো লুটপাটের রাজনীতি কায়েম করবে। কিন্তু জাতীর
জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা জনগণকে সাথে নিয়ে তাদেরঐ অশুভ চক্রান্ত প্রতিহত করেছে। এখন আবারো তারা নতুন করে খালেদা-তারেকের লুটপাট দুর্নীতি আর অনিয়মের বিচার কার্যক্রম ব্যাহত করতেনানা ধরনের ষড়যন্ত্র করছে। হুঙ্কার দিচ্ছে জনগনকে ভয় দেখাচ্ছে। কিন্তুমুক্তিযুদ্ধের অসাম্প্রদায়িক চেতনায় উজ্জীবিত বাংলার জনগনবিএনপি-জামায়াতের ভয়ে ভীত নয় বলেই আজ খালেদার এতিমের টাকালুট করে মেরে খাওয়ার রায়ের দিনে সমবেত হয়েছে। দেশের সকল ধর্ম-বর্ণশ্রেণী পেশার মানুষ এক হয়ে তাদের প্রতিহত করতে সোচ্চার। যারাএতিমের টাকা মেরে খায়, লুট করে, দেশের প্রচলিত বিচারের মাধ্যমেতাদের স্থান কারেগারেই হয়।বাংলাদেশ ছাত্র যুব ঐক্য পরিষদ সাঘাটা উপজেলা শাখার নতুন সদস্যসংগ্রহ, নবায়ন, সংবর্ধনা ও শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধানঅতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার আলহাজ্ব এ্যাড. ফজলে রাব্বী মিয়া এমপি।