বেগম খালেদা জিয়ার ৮ই ফেব্রুয়ারি রায়ের প্রতিবাদে ক্যানবেরায় অস্ট্রেলিয়া ফেডারেল পার্লামেন্ট এবং হাইকমিশনের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশও স্মারকলিপি পেশ

393
gb

সিডনি রিপোর্টার ||

বিএনপির চেয়ারর্পাসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেএী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারী  জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ের দিন ধার্য করেছে আদালত। এ রায়কে কেন্দ্র করে বাংলাদেশের মত অস্ট্রেলিয়া বিএনপি নেতাকর্মীরা উদ্বিগ্ন। বাংলাদেশে আগামী নির্বাচন তাই আওয়ামীলিগ সরকার বিচার বিভাগকে প্রভাবিত করে রায়ের মাধ্যমে বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে বাইরে রেখে ৫ই জানুয়ারীর মত সরকার আরেকটি নির্বাচন করতে চায়।এর প্রতিবাদে এবং নির্দোলীয় সরকারের অধীনে আগামী সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবীতে বিক্ষোভ সমাবেশ ৫ই ফেব্রুয়ারি রোজ সোমবার দুপুর ১২টায় বাংলাদেশ হাইকমিশনের সামনে এবং১২ঃ৩০টায় অস্ট্রেলিয়ার ফেডারেল পার্লামেন্টের সামনে অনুষ্ঠিত হয়।

সিডনি থেকে ৩৫০ কিলো মিটার দূরে ক্যানবেরায় ফেডারেল পার্লামেন্টের এবং বাংলাদেশ হাইকমিশনের সামনে অসংখ্য নেতৃবৃন্দ ব্যানার পেষ্টুস নিয়ে“আমার নেএী আমার মা বন্দী হতে দিবোনা”সেইভ বাংলাদেশ সেইভ গণতন্ত্র “স্লোগানে মুখরিত হয় পুরো এলাকা জুড়ে। বিএনপি অস্ট্রেলিয়ার নেতৃবৃন্দ অভিযোগ করে বলেন,বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে রাজনীতি থেকে দূরে রেখে আবারো পাতানো নির্বাচন করতে যাচ্ছে আওয়ামীলীগ সরকার কিন্তু আমরা প্রবাসী নেতৃবৃন্দ এবংবাংলাদেশের লক্ষ কোটি জিয়ার সৈনিক বেঁচে থাকতে এই কুট কৌশল কখনো সফল হতে দিবনা।  বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী  জুলি বিশপ এবং বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্টপতি বরাবর হাই কমিশনারের নিকট বিএনপি অস্ট্রেলিয়ার পক্ষ থেকে স্মারক প্রদান করা হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশে সিনিয়র নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মনিরুল হক জর্জ,প্রফেসর ডঃ হুমায়ের চৌধুরী রানা,মোঃমোসলেহ উদ্দিন হাওলাদার আরিফ,লিয়াকত আলী স্বপন,ডাঃআব্দুল ওহাব বকুল,আরিফুল হক,হাবিব মোহাম্মদ জকি,রুহুল আহম্মেদ,মোঃআবুল হাছান,তারিক উল ইসলাম তারেক,সোহেল ইকবাল মাহমুদ,আশরাফুল আলম রনি,খাইরুল কবির পিন্টু,জাকির আলম লেলিন,মোঃআবুল কাশেম,মিতা কাদরী,ফেরদৌস অমি।  অনুষ্ঠানটি যৌথভাবে পরিচালনা করেন ইন্জিনিয়ার হাবিবুর রহমান এবং এএনএম মাসুম।

এছাড়া আরো ও নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শহীদ পারভেজ,মোঃফরিদ আহম্মেদ,রেজাউল হক,মোঃকামরুল ইসলাম,মোঃজসিম উদ্দিন,মোঃমাসুদ রানা,আরমান হোসেন ভুইয়া,সোহেব জাহাঙ্গীর,সাইমুম বিন শামস,মোহাম্মদ জুম্মান হোসেন,আলামিন জকি,আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইউছুফ আলী,মোঃমাহবুবুর রহমান,কামাল হোসেন,নাসিমা শারমিন,কেএম মুনসুর খালিদ,কেএম মন্জুরুল হক,মোঃআকারুল ইসলাম,সায়মা বিনতে ইসলাম,রানা রহমান প্রমুখ।

বিএনপি অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম সিনিয়র নেতা ডঃহুমায়ের চৌধুরী জানান,স্মারক লিপিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নিকট  আমরা জোরালো দাবী জানিয়েছি যে আগামী ৮ই ফেব্রুয়ারি এই মিথ্যা মামলায় কোন হস্তক্ষেপ  না করে এবং শ্রীঘ্ই এই মিথ্যা মামলা থেকে মুক্তি দিয়ে  দ্রুত বাংলাদেশের গণতন্ত্র মানুষের ভোটাধিকার এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার জন্য অস্ট্রেলিয়া  সরকারের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

মনিরুল হক জর্জ বলেন,বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি কাছে প্রবাসী বাংলাদেশী হিসাবে আবেদন জানিয়েছি যেন আগামী ৮ ই ফেব্রুয়ারি দেশনেএী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে কোন অবৈধ রায় না দেওয়া হয়। আর যদি ক্যাংগারো কোর্টের মাধ্যমে কোন অবৈধ রায় দেওয়া হয় তাহলে প্রবাসে লাগাতার হাসিনার পদত্যাগের দাবীতে কঠিন কর্মসূচীর মাধ্যমে অবৈধ সরকারকে কঠিন জবাব দেওয়া হবে।