সোনামসজিদ সীমান্তে আটক ৯ উট অবশেষে নিলামে ৬৮ লক্ষ টাকায় বিক্রি

1,144
gb

জিবিনিউজ24 ডেস্ক || চাঁপাইনবাবগঞ্জ সোনামসজিদ সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে চোরাচালান হয়ে
আসার পর বিজিবি অভিযানে আটক বৃহদাকৃতির ৯টি উট অবশেষে নিলামে
বিক্রি হয়েছে। বুধবার দুপুরে শিবগঞ্জ শুল্ক অফিসে এই নিলাম অনুষ্ঠিত হয়।
আদালতের নির্দেশে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে অনুষ্ঠিত নিলামে শিবগঞ্জ উপজেলা
নির্বাহী অফিসার,এ ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় পুলিশের তদন্ত কর্মকর্তা,
বিজিবি, পশু সম্পদ বিভাগ ও গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
শিবগঞ্জ শুল্ক অফিস পরিদর্শক আলমগির হোসেন জানান, প্রকাশ্য নিলামে মূল্য ও
শুল্কসহ প্রায় ৬৮ লক্ষ টাকায় ৯টি উট কেনেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের ব্যবসায়ী
আয়াত নূর। নিলামে ২৫০ জন অংশ নেন বলেও জানান তিনি। এসময় প্রায়
দু’হাজার মানুষ নিলামস্থলে জড়ো হয়। চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৫৯’বিজিবি
ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে.কর্ণেল রাশেদ আলী জানান, গত ১২ জানুয়ারী ভোরে
সীমান্তে দুটি পৃথক অভিযানে উটগুলি আটকের পর এগুলির জব্দ মূল্য নির্ধারণ হয়
৪৫ লক্ষ টাকা। এ ব্যাপারে ওইদিনই শিবগঞ্জ থানায় ১৭ জনকে আসামী করে দুটি
মামলা হয়। উটগুলি পাঠানো হয় শিবগঞ্জ শুল্ক গুদামে। এদিকে আটকের পর উটগুলি
দেশের বিভিন্ন চিড়িয়াখানায় পাঠানোর দাবীতে আন্দোলন গড়ে ওঠে।
এমনকি গত ১৫ জানুয়ারী শিবগঞ্জ শহরে উটগুলি নিলামে দিয়ে হত্যা না করার
দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকেও
উটগুলি চিড়িয়াখানায় হস্তান্তরের দাবী করেন অনেকে। এতদিন উটগুলি দেখতে
দুর-দুরান্তের হাজার হাজার মানুষ ভীড় করে শিবগঞ্জ শুল্ক অফিসে। এসব নিয়ে
বিভিন্ন গণমাধ্যম একাধিক সচিত্র সংবাদ প্রকাশ করে। বৃহদাকৃতির উটগুলি
ভারতের রাজস্থান থেকে আনা হয়েছিল বলে একটি সূত্রে জানা গেছে। শিবগঞ্জ
পৌরসভার মেয়র কারিবুল হক রাজিন জানান, নিলামে উচ্চ মূল্য পাওয়ায় সরকারের
রাজস্ব বেড়েছে।