বেনাপোলে রাজস্ব ফাঁকিতে সহযোগিতা ৩ কর্মকর্তা বরখাস্ত ; দুইটি সিএন্ডএফ এজেন্ট লাইসেন্স বাতিল

ইয়ানূর রহমান :  বেনাপোল বন্দরে ৩০ লাখ টাকা রাজস্ব ফাঁকির ঘটনায় রোববার বেনাপোল কাস্টমসের ৩ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। সেই সাথে বাতিল করা হয়েছে ২টি সিএন্ডএফ এজেন্ট লাইসেন্স। কাস্টমস হাউজ সূত্রে জানা যায়, ঢাকার আমদানিকারক মেসার্স আলহামদুলিল্লাহ এন্টারপ্রাইজ ভারত থেকে ৬৬৫ প্যাকেজ মোটর পার্টসসহ বিভিন্ন পণ্য আমদানি করে (যার কাস্টমস বি/ই নম্বর-১৪৮২৭ ও তারিখ ২৭.০২.২০)। চালানটি আমদানি হওয়ার পর কাস্টমসের কাছে সংবাদ আসে চালানে বড় ধরনের রাজস্ব ফাঁকি রয়েছে। কিন্তু সংশ্লিষ্ট সিএন্ডএফ এজেন্ট একজন রাজস্ব কর্মকর্তা ও দু’জন সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তাকে ম্যানেজ করে পণ্য চালানটি গোপনে খালাস করে। পরে অতিরিক্ত কমিশনার ড. নেয়ামুল ইসলাম বুঝতে পেয়ে চালানটির ৪ ট্রাক পণ্য আটকের নির্দেশ দেন। কিন্তু তার নির্দেশনা উপেক্ষা করে ৩ রাজস্ব কর্মকর্তার সহযোগিতায় ট্রাকগুলো ছেড়ে দেয়া হয়। ফলে সরকারের ৩০ লাখ টাকার রাজস্ব ফাঁকি হয়। পরবর্তীতে অতিরিক্ত কমিশনার অভিযুক্ত রাজস্ব কর্মকর্তা নাশেদুল ইসলাম, সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা আশাদুল্লাহ ও ইবনে নোমানকে বরখাস্ত করেন। এবং রাজস্ব ফাঁকির সিএন্ডএফ এজেন্টস মেসার্স মদিনা এন্টারপ্রাইজ ও মেসার্স মাহিবি এন্টার প্রাইজের লাইসেন্স সাময়িক বাতিল করা হয়। ড. নেয়ামুল ইসলাম জানান, ঘটনা রাজস্ব বোর্ডকে অবিহিত করা হয়েছে।#

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন