গোবিন্দগঞ্জে ডাক্তার,পুলিশ, নার্সসহ নতুন করে ৪৩ জন করোনা শনাক্ত,শনাক্ত বেড়ে ১৮৩জন

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধাঃ  গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ  শনিবার ৪ঠা জুলাই আরও ৪৩জন করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) রোগে আক্রান্তের খবর পাওয়া গেছে। এ ৪৩ জন রংপুর মেডিক্যাল কলেজে স্থাপিত আর টি পিসিআর ল্যাব ছাড়াও ঢাকার বিভিন্ন ল্যাবে পরীক্ষা করে শনাক্ত হয়েছে।
নতুন আক্রান্ত ৪৩ জন হল -রেজাউল হক-সে পৌর শহরের হীরক পাড়ার বাসিন্দা,আব্দুল অাওয়াল-সে পৌর শহরের ঘোষপাড়ার বাসিন্দা, সিরাজুল ইসলাম সে পৌর শহরের দূর্গাপুর(পান্হাপাড়া) এলাকার বাসিন্দা, কোরবান আলী-সে পৌর শহরের দূর্গাপুর মহল্লার বাসিন্দা ,শামীমা খাতুন সে পৌর শহরের  প্রধানপাড়ার বাসিন্দা,রুবিনা,হারুন ওর রশিদ (হারুন ব্রাদার্স) পৌর শহরের পান্হাপাড়ার বাসিন্দা,সুমি -সে পৌর শহরের  ঠাকুর বাড়ি মহল্লার বাসিন্দা, জাহান্গীর- সে  ঘুগা বাসিন্দা,সাজ্জাদুর রহমান সে কোচাশহর ইউনিয়নের শক্তি পুর গ্রামের বাসিন্দা,অাব্দুল  হামিদ মেম্বার সে তালুক কানুপুর ইউনিয়নের  উত্তরপাড়ার বাসিন্দা,  অানিকা সে পৌর শহরের  পান্হাপাড়ার বাসিন্দা , অাশিক-সে পৌর শহরের  ঘোষপাড়ার বাসিন্দা , জান্নাতুল ফেরদৌস – কোচাশহর ইউনিয়নের বাসিন্দা, অাব্দুল্লাহ মামুন-সে গোবিন্দগঞ্জ কোর্টে কর্মরত, মানিক সে পৌর শহরের  পান্হাপাড়ার বাসিন্দা, অামিরুল সে পৌর শহরের  ঘোষপাড়ার বাসিন্দা , তাজরুল সে নাকাই ইউনিয়নের পাটোয়া গ্রামের বাসিন্দা ,অাব্দুর রহমান পৌর শহরের  বুজরুক বোয়ালিয়া মহল্লায় বাসিন্দা। ফয়েজ উদ্দিন -পৌর শহরের গোবিন্দগঞ্জ  মহিলা কলেজ এলাকার বাসিন্দা,নাবিল-সে পৌর শহরের গোহাটিপাড়ার নাসিরের পুত্র,এনামুল কবির -সে খামারপাড়ার বাসিন্দা। অাবু তালেব ও জহুরা এদুজন দরবস্ত ইউনিয়নের দূর্গাপুর মহল্লার বাসিন্দা,রুনিল সরেন-সে কাটাবাড়ী ইউনিয়নের বেগুনবাড়ি এলাকার বাসিন্দা,  দিল জাহান রূবা-সে পৌর শহরের  শিল্পপাড়ার বাসিন্দা।
এছাড়া গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেের ডাক্তার-১,নার্স-২, অফিস সহকারী ১জন ও তার মা,ভাই,ছেলেসহ অফিস সহায়ক -১, স্বাস্থ্য সহকারী -১জন করোনা শনাক্ত হয়েছে।এর মধ্যে গোবিন্দগঞ্জ  থানার ২ পুলিশ সদস্য ও গোবিন্দগঞ্জ  হাইওয়ে থানার দুই পুলিশ সদস্য রয়েছে।
এ ৪৩ জন শনাক্তের তথ্যের সত্যতা শনিবার দুপুর ১টায় নিশ্চিত করেছেন গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ক কর্মকর্তা মজিদুল ইসলাম।
এনিয়ে  উপজেলায় মোট  শনাক্ত সংখ্যা দাঁড়াল -(১৪৪+৩৯)=১৮৩ জন।এর মধ্যে ৪জন মারা গেছে এবং ৭৫ জন সুস্থ হয়ে বাড়ী ফিরে গেছে।বাকীরা চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন