যুক্তরাজ্য বিএনপি আয়োজিত তারেক রহমানের ৫৩তম জন্মদিনের আলোচনা সভা

370
gb
যুক্তরাজ্য বিএনপি আয়োজিত তারেক রহমানের ৫৩তম জন্মদিনের আলোচনা সভায় – কেন্দ্রীয় বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক  শহিদুল ইসলাম বাবুল  
 বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান  তারেক রহমানকে বরণ করে নিতে সমগ্র দেশেবাসী অপেক্ষার প্রহর গুনছে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল ।  
বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান ৫৩তম জন্মদিন উপলক্ষে যুক্তরাজ্য বিএনপি আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এ কথা বলেন।
গত ২০ শে নভেম্বর পূর্ব লন্ডনে যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালিকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমেদের পরিচালনায় অনুস্টিত আলোচনা সভায় তিনি আরো বলেন, বিএনপি এখন বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় দল। যারা ভেবে ছিল বিএনপির নেতাকর্মীদেরকে গুম, খুন, জেল-জুলুম, অত্যাচার-নির্যাতন করে জিয়া পরিবারের নাম জনগনের হৃদয় থেকে মুছে ফেলবে তারা অতীতে সফল হয় নাই, এখনও পারে নাই এবং ভবিষ্যতেও পারবে না। বাংলাদেশ এখন ফ্যাসিবাদের দখলে,  ১/১১  কুশীলবদের চক্রান্ত্র এখনও অব্যাহত রয়েছে।            
তিনি বলেন, তারেক রহমান বাংলাদেশকে একটি আত্মনির্ভরশীল সমৃদ্ধশালী গণতান্ত্রিক দেশ হিসাবে গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন যে কারনে তিনি বাংলাদেশের প্রতিটি প্রান্ত চষে বেড়ীয়ে ছিলেন।  ষড়যন্ত্রকারীরা তার এই অগ্রযাত্রাকে স্তব্দ করে দিতে তার উপর এতো অত্যাচার নির্যাতন চালিয়েছিল। কিন্তু ষড়যন্ত্রকারীদের সেই স্বপ্ন কখনো সফল হবে না কারন বিএনপি হলো জনগণের আশা আকাঙ্ক্ষার প্রতিক। তিনি বলেন, বাংলাদেশে আগামীতে আর কখনো ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি মার্কা নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না। বাংলাদেশে গনতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে প্রবাসী যুক্তরাজ্য বিএনপির নেতাকর্মীদের অবদান দেশবাসী চিরদিন স্মরণ রাখবে।        
সভাপতির বক্তবে এম এ মালিক বলেন, দেশে গনতন্ত্র পুনরুদ্দার না হওয়া পর্যন্ত যুক্তরাজ্য বিএনপির  আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমান লন্ডনে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায়ও তিনি প্রতিনিয়ত বাংলাদেশের জনগনের কথা ভাবেন। তিনি সর্বদা দলের প্রতিটি নির্যাতিত নেতাকর্মীর খোঁজ খবর নেন। এম এ মালিক বলেন, তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ফ্যাসিস্ট হাসিনা সরকারের ষড়যন্ত্র দেশে বিদেশে অব্যাহত রয়েছে । জাতীয়তাবাদী শক্তির গনজোয়ার দেখে অবৈধ হাসিনা সরকারে ঘুম হারাম হয়ে গেছে।         
সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমেদ বলেন, স্বৈরাচারী সরকার মামলা আর গ্রেফতারী পরোয়ানা  দিয়ে দেশনায়ক তারেক রহমানের চিন্তা চেতনাকে দমিয়ে রাখতে পারবে না। আওয়ামী বাকশালীদের চোখ রাঙ্গাটিতে তারেক রহমান বিচলিত নয়। তিনি বলেন, সকল বাধা বিপত্তি অতিক্রম করে  যেদিন  দেশনায়ক বীরের বেশে বাংলাদেশে ফিরবেন সেদিনের গনজোয়ার আওয়ামী বাকশালিরা ভেসে যাবে।  
 
সভায় বক্তারা বলেন, অবৈধ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশেবিদেশী ষড়যন্ত্রকারিদের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে দেশের স্বার্থকে বিসর্জন দিচ্ছে। দেশের স্বাধীনতা ও সাভৌমত্ত আজ হুমকির মুখে। দেশের প্রতিটি প্রতিস্টানকে দলীয়করণের মাধ্যমে ধ্বংসস্তুপে পরিণত করেছে। বক্তারা বলেন, অবৈধ সরকার জেল জুলুম, নির্যাতন, গুম খুন ও মানুষের ভোটাধিকার হরণ করে ক্কমতা চিরস্থায়ী করার যে স্বপ্ন  দেখছে বাংলাদেশের দেশপ্রেমিক জনতা তা কখনো হতে দেবে না । দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও দেশনায়ক তারেক রহমানের নেতৃত্বে চলমান গনতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনকে সাফল্যমণ্ডিত করে  বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে ন্যায়বিচার, আইনের শাসন, সুশাসন, মানুষের মৌলিক অধিকারকে পুনপ্রতিস্টা করা হবে।   
আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার নওশাদ জমির, কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন খোকন, যুক্তরাজ্য বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল হামিদ চৌধুরী, সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদ, কেন্দ্রীয় যুবদলের সাবেক আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মুজিবুর রহমান মুজিব, উপদেষ্টা আলহাজ্ব তৈমুছ আলী, সহসভাপতি মোঃ গোলাম রাব্বানি, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাবেক আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নসরুল্লাহ খান জুনায়েদ, তারেক রহমানের মানবাধিকার বিষয়ক উপদেস্টা ব্যারিস্টার আবু সালেহ মোঃ সায়েম, যুগ্ম সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মামুন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ খান, কামাল উদ্দিন, সাবেক যুগ্ম-সম্পাদক নাসিম আহমেদ চৌধুরী, যুক্তরাজ্য যুবদলের সাবেক আহ্বায়ক দেওয়ান মোকাদ্দেম চৌধুরী নিয়াজ, যুক্তরাজ্য বিএনপির সহ-সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস আলম, শামসুর রহমান মাহতাব, সাংগঠনিক সম্পাদক শামিম আহমেদ, খসরুজ্জামান খররু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোশাহিদ আলী তালুকদার, লন্ডন মহানগর বিএনপির সভাপতি তাজুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আবেদ রাজা, যুক্তরাজ্য বিএনপির সিনিয়র সদস্য এডভোকেট তাহির রায়হান চৌধুরী পাবেল, আলহাজ্ব সাদিক মিয়া, মিছবাহুজ্জামান সোহেল, আশরাফুল ইসলাম হীরা, কোষাদক্ষ আব্দুস সাত্তারযুব বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল হামিদ খান হেভেনছাত্র বিষয়ক সম্পাদক আবু নাসের শেখ, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান আকতার, সহ আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট লিয়াকত আলী, সহ-দপ্তর সম্পাদক সেলিম আহমেদসহ-তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক জাহিদ হোসেন গাজী, সদস্যসালেহ গজনবী, আব্দুল বাসিত বাদশা, হাবিবুর রহমান, এ জে লিমন, লুবেক আহমেদ চৌধুরী, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহসভাপতি শফিকুল ইসলাম রুবলু, ইস্ট লন্ডন বিএনপির সভাপতি ফখরুল ইসলাম বাদল, এনফিল্ড বিএনপির সভাপতি হেলাল উদ্দিন, নর্থ ওয়েস্ট বিএনপির সভাপতি হাজী এম এ সেলিম, সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন, সাউথ ইস্ট বিএনপির সভাপতি সালেহ আহমেদ জিলান, সাধারণ সম্পাদক মকসুদ আলী জাকারিয়া, নিউ হাম বিএনপির সভাপতি মোঃ  মোস্তাক আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক সেবুল মিয়া, আয়ারল্যান্ড বিএনপিনেতা হামিদুল হক নাসির, কবির আহমেদ, স্পেন বিএনপি নেতা আব্দুল কায়ুইম পঙ্কি,মিজানুর রহমান বিপ্লব, সুইজাল্যান্ড বিএনপি নেতা ওবায়দুর রহমান স্বপন, ফিনল্যান্ড বিএনপিনেতা মুজিবুর রহমান হিরক, সুইডেন যুবদল সভাপতি খায়রুজ্জামান লিংকন, যুক্তরাজ্য যুব দলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক তোফায়েল বাসিত তপু, সুজা আহমেদ,     লন্ডন মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল কুদ্দুছ, সহসভাপতি আব্দুর রব, তপু শেখ, যুগ্ম সম্পাদক ফয়ছল আহমেদ,  যুগ্ম সম্পাদক সোহেল শরিফ মোঃ করিম,  সহ সাধারণ সম্পাদক তুহিন মোল্লা, দপ্তর সম্পাদক   নজরুল ইসলাম মাসুক, পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক রুমেল আহমেদ, আরিফুল হক, যুক্তরাজ্য যুবদলের সভাপতি রহিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন, আইনজীবী ফোরামের সভাপতি ব্যারিস্টার আবুল মন্সুর শাহজাহান, সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট আবুল হাসনাত, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নাসির আহমেদ শাহিনসিনিয়র সহসভাপতি মিসবাহ বি এস চৌধুরীসাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেনজাসাস সভাপতি এমাদুর রহমান এমাদ, সাবেক সভাপতি এম এ সালাম, সাধারণ সম্পাদক তাজবির চৌধুরী শিমুল, সিনিয়র সহসভাপতি তরিকুর রশিদ  চৌধুরী শওকত, যুবদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ লায়েক মোস্তাফা, যুবদল নেতা আব্দুল হক রাজ মোস্তাক আহমেদ, আব্দুল কাদির সমছু, দেওয়ান আব্দুল বাসিত, আক্তার হসেন শাহিন, মুহিবুর রহমান সাঞ্জব,  সুরমান খান, ওবায়দুল হক চৌধুরী এমাদ, বাবর চৌধুরী,শাহজাহান আলম, শাহজাহান হোসাইন শেনাজ, শেখ কামাল তারেক, নুরুল আলী রিপনআবুল খয়েরডাক্তার মন্সুর আহমেদশাহেদ আহমেদ, আল্কু মিয়া, মোজাহিদ আলী সুমন, মোশারফ হোসেন ভূঁইয়ামোশারফ হোসেনসুয়েদুল হাসানসাকিল আহমেদ, সুমন আহমেদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি আতাউর রহমান মিফতা, ডালিয়া লাকুরিয়া, যুগ্ম সম্পাদক এ জে শিমু, জাহেদ আহমেদ তালুকদার, আজিম উদ্দিন, কামাল উদ্দিন, জাহিদুর রহমান জাহিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউর রহমান, প্রচার সম্পাদক জুল আফরোজ, সাদেক আহমেদ, ছাত্রনেতা সাইফুল ইসলাম মিরাজইমতিয়াজ এনাম তানিম, মনির আহমেদরেজাউল করিম, সোহাগ আহমেদ, ফজলে রহমান পিনাক প্রমুখ ।