চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১২টি আগ্নেয়াস্ত্র,৪০ রাউন্ড গুলি ও ১৩টি ম্যাগজিনসহ গ্রেফতার ১

41
gb

জাকির হোসেন পিংকু,চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:
চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলায় অভিযান চালিয়ে ৭টি বিদেশী পিস্তল,৫টি ওয়ান শ্যুটারগান,৪০ রাউন্ড গুলি ও ১৩টি ম্যাগজিনসহ আলামিন খন্দকার (২৫) নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব। তিনি পাবনা জেলার ইশ্বরদী থানার আথাইল শিমুল গ্রামের মৃত হাফিজুর রহমানের ছেলে। আলামিনকে গ্রেফতারের সময় তার এক সঙ্গি শিবগঞ্জের আজমতপুর হুদমাপাড়া গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে মজিবুর রহমান(৩৫) পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।
গ্রেফতার ও পলাতকরা শীর্ষ অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবসায়ী বলে জানিয়েছে র‌্যাব।
গত মঙ্গলবার(৮’অক্টোবর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে ধোপপুকুর এলাকার একটি পেট্রোল পাম্পের সামনে থেকে আলামিনকে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করা হয়।
বুধবার (৯’অক্টোবর) সকালে র‌্যাব-৫ ব্যাটালিয়ন,রাজশাহীর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মাহফুজুর রহমান চাঁপাইনবাবগঞ্জ র‌্যাব ক্যাম্পে মঙ্গলবার রাতের অস্ত্র উদ্ধার অভিযানের ব্যাপারে প্রেস ব্রিফিং করেন।
এসময় তিনি বলেন, মঙ্গলবার রাতে তাঁর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ র‌্যাব ক্যাম্প কমান্ডার এএসপি আজমল হোসেনের নেতৃত্বে অভিযানটি চালানো হয়। ওই সময় তারা র‌্যাব সদস্যদের নিয়ে কানসাট থেকে সোনামসজিদ পর্যন্ত মহাসড়কে ভারত থেকে আসা একটি বড় চালানের ফেনসিডিল আসার গোপন খবর পেয়ে তা আটকের জন্য টহলে ছিলেন।
টহলকালে গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হওয়ায় রাত সাড়ে ৮টার দিকে ধোবপুকুর এলাকায় আলামিন ও তার সঙ্গিকে চ্যালেঞ্জ করা হয়। এসময় সঙ্গি দৌড়ে পালিয়ে গেলেও হাতের একটি ব্যাগে থাকা ৭টি বিদেশী পিস্তল,৫টি ওয়ান শ্যুটারগান,৪০ রাউন্ড গুলি ও ১৩টি ম্যাগজিনসহ আলামিনকে গ্রেফতার করা হয়। আলামিন নিজেকে একজন ট্রাক চালক বলে পরিচয় দিয়েছেন। তাকে গ্রেফতারের সময় নিকটেই সোনামসজিদ মহাসড়কে একটি পাথরবাহী ট্রাক দাঁড়ানো অবস্থায় ছিল যা জব্দ করা হয়েছে।
অস্ত্রসহ আটকের এই ঘটনায় প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব। ###

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More