সুনামগঞ্জে ভগবানের সান্নিধ্য ও স্বর্গ লাভের আশায় স্বামী-স্ত্রীর ‘আত্মহত্যা

246

জিবি নিউজ ডেস্ক।।

সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলায় দীর্ঘ উপবাস শেষে ভগবানের সান্নিধ্য ও স্বর্গ লাভের আশায় প্রসাদের সঙ্গে ইঁদুরের বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেছেন এক দম্পতি। গতকাল শুক্রবার উপজেলার দৌলতপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত দম্পতি হলেন অম্রিকা তালুকদার ও তাঁর স্ত্রী তৃপ্তি রানি তালুকদার। তাঁরা জামালগঞ্জ উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের বাসিন্দা।

স্থানীয়রা জানায়, দৌলতপুর গ্রামের অম্রিকা তালুকদার সব সময় নিজেকে আধ্যাত্মিক গুরু মনে করতেন। গত বৃহস্পতিবার অম্রিকা ও তাঁর স্ত্রী তৃপ্তি রানী তালুকদার একাদশীর উপবাস ব্রত পালন করছিলেন। পরে গতকাল উপবাস ভেঙে ভগবানের সান্নিধ্য লাভের আশায় নিজে ও স্ত্রীকে বিষ মাখানো প্রসাদ খাওয়ান অম্রিকা তালুকদার। একপর্যায়ে প্রসাদ খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁদের ছেলে-মেয়েরা আশপাশের লোকজনকে খবর দেন। পরে স্থানীয়রা গিয়ে ওই দম্পতিকে জামালগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল দুপুর ২টার দিকে মারা যান অম্রিকা তালুকদার। এরপর স্ত্রী তৃপ্তি রানিকে গুরুতর অবস্থায় সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সন্ধ্যার দিকে তিনিও মারা যান।

নিহত অম্রিকা তালুকদারের বড় ভাই রঞ্জিত তালুকদার জানান, অম্রিকা তালুকদার আধ্যাত্মিকতায় বিশ্বাস করতেন। গতকাল উপবাসের পর প্রসাদ হাতে নিয়ে অম্রিকা তাঁর স্ত্রীকে বলেন, ‘এটা খেলে তুমি ভগবানের সান্নিধ্য লাভ করবে।’ এরপর প্রথমে স্ত্রীকে ওই বিষ মাখানো প্রসাদ খাওয়ান অম্রিকা, পরে নিজেও খেয়ে ফেলেন সেই প্রসাদ। এরপর তাঁরা দুজনই অসুস্থ হয়ে পড়েন।

পরে এলাকাবাসী খবর পেলে তাঁদের কাছে বিষ খাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেন অম্রিকা তালুকদার।

জামালগঞ্জ থানার কর্তব্যরত পুলিশ পরিদর্শক রুবেল আহমদ জানান, স্বামী-স্ত্রী একসঙ্গেই বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেছেন। নিহত অম্রিকা তালুকদার আধ্যাত্মিকতায় বিশ্বাস করতেন শুনেছি। তিনি ভগবানের সান্নিধ্য লাভের কারণে এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন। তবে অন্য কোনো কারণ আছে কি না, তা তদন্তের পর জানানো যাবে। ওই দম্পতির মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলেও জানান রুবেল আহমদ।

জামালগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইফুল আলম বলেন, বিষ খাওয়া অবস্থায় স্বামী-স্ত্রীকে গতকাল দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জামালগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। স্বামী অম্রিকা তালুকদার ওই হাসপাতালে মারা যান। পরে ওইদিন বিকেলে স্ত্রী তৃপ্তি রানী তালুকদার সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে মারা যান। বর্তমানে স্বামী-স্ত্রীর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে রাখা আছে। বিষয়টি আরো খতিয়ে দেখতে আমাদের লোকজন ঘটনাস্থলে গেছে।