ওসি আমিনুলের মহানুভবতা পরিবহন থেকে দেওয়া ১৫ হাজার টাকা দিলেন সাব্বিরের চিকিৎসার জন্য

137
gb

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি  ||
পরিবহন মালিকের পক্ষ থেকে দেওয়া ১৫ হাজার টাকা সড়ক দুর্ঘটনায় আহত স্কুল ছাত্র সাব্বিরের চিকিৎসার সাহায্যার্থে প্রদান করে আবারো মহানুভবতার পরিচয় দিয়েছেন পাইকগাছা থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। দুর্ঘটনার পরের দিন তিনি ব্যক্তিগতভাবে ১৫ হাজার টাকা সহায়তা দেন। এদিকে, ৪ দিন পর গাজী মেডিকেল থেকে চিকিৎসাধীন সাব্বিরকে আবু নাসের হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। তবে এখনও তার শারীরিক অবস্থার কোন উন্নতি হয়নি বলে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, গত বুধবার সকালে উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের সামনে ঈগল পরিবহনের সাথে মর্মান্তিক এক সড়ক দুর্ঘটনায় উপজেলার ভিলেজ পাইকগাছা গ্রামের দিনমজুর মুনসুর আলী সরদারের ছেলে ও পাইকগাছা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী সাঈদ মুনতাসির সাব্বির গুরুতর আহত হয়। ঐদিন থেকে মুমূর্ষ অবস্থায় সাব্বির খুলনার গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিল। ৪দিন পর সোমবার দুপুরে তাকে শেখ আবু নাসের হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয় বলে প্রধান শিক্ষক আবুল হোসেন সেখ জানিয়েছেন। এদিকে, সাব্বিরের চিকিৎসার সাহায্যার্থে বৃহস্পতিবার থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বিপ্লব ব্যক্তিগতভাবে ১৫ হাজার টাকা অনুদান দিয়ে সহায়তা করেন। সহায়তার এ খবর বিভিন্ন পত্রিকায় ও ফেসবুকের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ঈগল পরিবহন মালিক কর্তৃপক্ষের নজরে আসে। পরে সোমবার বিকাল ৪টার দিকে মালিক কর্তৃপক্ষ স্থানীয় কাউন্টার কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে গোপনে ১৫ হাজার টাকা ওসি’র নিকট পাঠিয়ে দেয়। পরে বিষয়টি বুঝতে পেরে এদিন সন্ধ্যায় বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দের ডেকে পরিবহন থেকে দেওয়া ১৫ হাজার টাকা সাব্বিরের চিকিৎসার সাহায্যার্থে শিক্ষকদের নিকট প্রদান করে আবারো মানবিকতায় মহানুভবতার পরিচয় দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, শিক্ষক ইমরুল ইসলাম, প্রদীপ শীল, ইদ্রিস আলী, সাংবাদিক আব্দুল আজিজ, যুবলীগনেতা শেখ শহীদ হোসেন বাবুল, মোঃ আব্দুল গফফার মোড়ল, আকরামুল ইসলাম ও গৌতম রায়। এ ব্যাপারে ওসি আমিনুল ইসলাম বিপ্লব বলেন, ঈগল পরিবহন কর্তৃপক্ষ আমার কাছে ১৫ হাজার টাকা পাঠানোর পর মনে হয়েছে তারা পরোক্ষভাবে ইতোপূর্বে সহায়তা করা ১৫ হাজার টাকা ফিরিয়ে দিয়েছে। তাই মানবিক দিক বিবেচনা করে পরিবহনের দেওয়া ১৫ হাজার টাকা সাব্বিরের চিকিৎসার সাহায্যার্থে বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের নিকট সহায়তা হিসেবে প্রদান করা হয়েছে।

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More