অবশেষে বন্ধ হলো বিতর্কিত মৌলভীবাজারি ক্রাশ এন্ড কনফেশন’নামের পেইজটি

1,176

জিবি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডট কম।।

মৌলভীবাজারি ক্রাশ এন্ড কনফেশন পেইজ যা বিগতো কয়েক বছর যাবৎ অনুমতি ছাড়া মৌলভীবাজারের অনেক ছেলে এবং মেয়ের নাম ও ছবি সহ তাদের Love Crush Confession পোষ্ট করে আসছে।

কাউকে দেখলেন, পছন্দ হয়ে গেলো। কিন্তু বলতে সাহস পাচ্ছেন না? চিন্তা নেই আপনার সেই না বলা কথা বলার জন্য আছে ফেইসবুক পেইজ। প্রতিনিয়ত এরকম বিভিন্ন মেয়ে ও ছেলের ছবি নিয়ে কারো করা কনফেশনগুলো ফেসবুকে ছড়িয়ে দিচ্ছে ‘মৌলভীবাজারি ক্রাশ এন্ড কনফেশন’ নামের পেইজটি।

আর এতে করে অনিচ্ছাকৃত ছবি প্রকাশ হওয়া ওই ‘মৌলভীবাজারি ক্রাশ এন্ড কনফেশন’ নামের পেইজটি।

আর এতে করে অনিচ্ছাকৃত ছবি প্রকাশ হওয়া ওই ভোক্তভোগী পড়তেন চরম বিপাকে। অনেকেই সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্নের স্বীকার হতেন। ছবি ও ফেইসবুক আইডি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেবার কারণে ভার্চুয়াল দুনিয়ায়ও হয়রানী মত ঘটনা ঘটে

পড়ে আপলোড কৃত পোষ্ট করায় নানান পারিবারিক ও সামাজিক সমস্যার সম্মূখীন হতে হচ্ছে সেই ছেলে/মেয়ের।
এ বেপারে তাদের পেইজের কতৃপক্ষের সাথে আলাপ করতে গেলে তারা জানান যে আপলোড কৃত পোষ্ট আর ডিলিট করা যাবে না।
এবং তাদের একটাই কথা এই মৌলভীবাজারি ক্রাশ এন্ড কনফেশন এতো দিন ধরে চলে আসছে আর চলবেই।

পরবর্তীতে সেই সমস্যায় সম্মূখীন হওয়া ছেলে/মেয়ে এই অসামাজিক কাজের শিকার হয়ে কিছু করতে না পেড়ে তাদের বিরুদ্ধে সংবাদ বায়ান্ন ডটকম এর জেলা প্রতিনিধি কে. বি খাঁন বিজয় কে এবং জিবি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম,সিলেট ভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম কে জানান যে এই বেপারে তাদের উপর কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো।

সেই তথ্যের ভিত্তিতে সাংবাদিক কে বি খাঁন বিজয়, ওমর ফারুক নাঈম, তাদের কাছে সেই মৌলভীবাজারি ক্রাশ এন্ড কনফেশননামক পেইজ কে নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে প্রমান সহ লিখিত একটি অভিযোগ আনেন, পরে সাংবাদিকগন তাদের কে অনুরোধ করে তিন দিনের সময় দেন যে আপলোড কৃত সকল ছেলে মেয়েদের পোষ্ট ডিলিট করা হউক অথবা সেই পেইজ বন্ধ করা হউক।

পরে দেখা যায় সেই পেইজের এডমিন সাংবাদিক দের কথা না মেনে তারা বলেন পেইজ এর পোষ্ট ডিলিট করা যাবে না,যদি পারেন কিছু করে নিবেন।
পড়ে দেখা যায় সাংবাদিকগন তাদের অনৈতিক আচরনের শিকার হয়ে এবং সেই ছেলে/মেয়েদের যারা সবই ছাত্র/ছাত্রী তাদের অভিযোগ এর উপর ভিত্তি করে তাদের মৌলভীবাজারি ক্রাশ এন্ড কনফেশন এর বিরুদ্ধে Facebook কতৃপক্ষের কাছে এবং দক্ষ হেকারের মাধ্যেমে রিপোর্ট করা হয়, এবং গত ২৭-০৬-১৯ ইং রোজ মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় তাদের পেইজ টি বন্ধ করে দেওয়া হয়।