নবীগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানের হাতে বিদ্যুৎ কর্মী আহত

1,698
gb

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ||
নবীগঞ্জ উপজেলার রিফাতপুর গ্রামে ৩ মাসের বকেয়া বিদ্যুৎ বিলের জন্য সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার অপরাধে ইউপি চেয়ারম্যান আবু সিদ্দিক পেটালেন হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নবীগঞ্জ জোনাল অফিসের ওয়ারিং ইন্সপেক্টর নজরুল ইসলাম ও লাইনম্যান আব্দুল্লা মোল্লা’কে। এতে দু’জনই গুরুতর আহত হয়। ঘটনার খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানা পুলিশের সহযোগিতায় বিদ্যুত অফিসের ইন্সপেক্টর তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা করিয়েছেন। এদের মধ্যে এক জনের অবস্থা গুরুতর বলে সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে।
জানাযায়, হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নবীগঞ্জ জোনাল অফিস বকেয়া বিদ্যুত বিল আদায়ে ব্যর্থ হয়ে সংযোগ বিচ্ছিন্ন কার্যক্রম শুরু করেন। গত বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে রিফাতপুর গ্রামে বাউসা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক আবু সিদ্দিকের নামীয় হিসাব নং ৫৬৫/৪৯২০ নং মিটারের ৩ মাসের বকেয়া বিদ্যুত বিল ১ হাজার ৬ শত ৩ টাকা এবং চেয়ারম্যানের সহোদর আবুল ফজল নামীয় হিসাব নং ৪৯২৩ নং মিটারে ৩ মাসের বকেয়া ৪ হাজার ৫ শত ৪৫ টাকা বকেয়া বিদ্যুত বিল পরিশোধের জন্য একাধিকবার তাগিদ দিলেও তা আদায় না হওয়ায় লাইন সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে যায়। এ সময় বিদ্যুত অফিসের ওয়ারিং ইন্সপেক্ট নজরুল ইসলামের নিদের্শে লাইন ম্যান আব্দুল্লা মোল্লা (২৩) চেয়ারম্যান আবু সিদ্দিকের মিটার সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেন। এর অপরাধে ঘর থেকে চেয়ারম্যান বের হয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে লাটি দিয়ে বেদরক মারপিট শুরু করেন। তার নির্মম আঘাতে ওয়ারিং ইন্সপেক্টর নজরুল ইসলাম (৪২) এবং লাইনম্যান আব্দুল্লা মোল্লা (২৩) মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। ঘটনার খবর পেয়ে বিদ্যুত বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা নবীগঞ্জ থানার একদল পুলিশের সহযোগিতায় তাদেরকে উদ্ধার করেন। এসআই প্রদ্যুত ঘোষ জানান, আহতদের নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে আহত ওয়ারিং ইন্সপেক্টর নজরুল ইসলাম জানান, তারা বাড়িটি চেয়ারম্যানের তা জানতেন না। জানার পর সংযোগ লাগানোর পরও ক্ষিপ্ত ইউপি চেয়ারম্যান আবু সিদ্দিক মারপিট করলেন। পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম আব্দুল বারীক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। এ ব্যাপারে চেয়ারম্যানের মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।