ফেব্রুয়ারিতে ভিয়েতনামে ট্রাম্প-কিম বৈঠক

109
gb

চলতি ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে ভিয়েতনামে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উনের মধ্যে বৈঠক হতে যাচ্ছে।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বলে ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানের খবরে জানা গেছে।

মঙ্গলবার কংগ্রেসে স্টেট অব দি ইউনিয়নের ভাষণে মার্কিন প্রেসিডেন্ট এ ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, যদি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে আমি নির্বাচিত না হতাম, আমার মতে- আমরা এখন উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে বড় ধরনের যুদ্ধে জড়িয়ে পড়তাম।

‘জিম্মি হওয়া আমাদের নাগরিকরা দেশে ফিরে এসেছেন এবং পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ হয়ে গেছে। গত ১৫ মাস হয়ে গেল, একটা ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাও হয়নি।’

ট্রাম্প বলেন, এখনও অনেক কাজ বাকি আছে। কিন্তু কিম জং উনের সঙ্গে আমার সম্পর্ক একটি ভালো দিক। চেয়ারম্যান কিম ও আমি আগামী ২৭ ও ২৮ ফেব্রুয়ারি ভিয়েতনামে বসতে যাচ্ছি।

নির্দিষ্ট ভেন্যুর কথা উল্লেখ করেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তবে সিএনএন জানিয়েছে, হ্যানয় ও ড্যানাঙে এ বৈঠক হতে পারে।

জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া এই ভাষণে ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ সীমান্তে একটি দেয়াল নির্মাণের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন। পাশাপাশি রাজনৈতিক ঐক্যের ডাকও দেন।

গত বছর সিঙ্গাপুরে এ দুই নেতার ঐতিহাসিক বৈঠকের পর থেকেই তাদের মধ্যে দ্বিতীয় বৈঠকের পরিকল্পনা নিয়ে কাজ শুরু হয়ে গিয়েছিল।

সিঙ্গাপুরের ওই বৈঠকটি ছিল উত্তর কোরিয়ার একজন নেতার সঙ্গে কোনো ক্ষমতাসীন মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রথম বৈঠক।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন