চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুরোদমে শুরু হয়েছে আম পাড়া: জমতে শুরু করেছে বাজার

42
gb

 

জাকির হোসেন পিংকু,চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:
ঈদের ছুটির পর চাঁপাইনবাবগঞ্জে জমতে শুরু করেছে আমের বাজার। ভরা মৌসুমে গাছ থেকে পুরোদমে পরিপক্ক আম পাড়তে শুরু করেছেন চাষী আর ব্যবসায়ীরা। জৈষ্ঠ্য মাসের শেষে দেশ সেরা চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম যেতে শুরু করেছে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে। ব্যস্ত সময় পার করছেন সংশ্লিষ্টরা। বিভিন্ন ধরনের পরিবহন আর কুরিয়ার সার্ভিসগুলোতে উপচে পড়া ভীড়। ঈদ ফেরৎ মানুষ আম নিয়ে যাচ্ছেন নিজের কর্মস্থলে। কেউবা পাঠাচ্ছেন নিকট জনের নিকট।
দেশের বৃহত্তম আমবাজার শিবগঞ্জ উপজেলার কানসাটসহ জেলার অনান্য আমবাজারগুলোতে সরবরাহ বেড়েছে। চাঁ^পাইনবাবগঞ্জ ছেড়ে যাওয়া প্রায় সকল মানুষের সঙ্গী এখন আমের ঝুড়ি। গাছ থেকে এখন পাড়া হচ্ছে দেশের তৃতীয় জিআই পণ্য স্বীকৃত ক্ষীরসাপাত জাতের আম। প্রায় মাসখানেক পাওয়া যাবে এই আম। প্রথম ওঠা ভাল জাতের আম গোপালভোগ এখন শেষের পথে।
কৃষি বিভাগের হিসেবে জেলায় উৎপন্ন আমের কুড়ি শতাংশ ক্ষীরসাপাত জাতের। অনেকেই বাগানে যাচ্ছেন ক্ষতিকর রাসায়নিকমুক্ত আম কিনতে। বাগানে চোখের সামনে আম পেড়ে ঝুড়ি করে দেয়া হচ্ছে। এ বছর আম মৌসুম রোজার শেষে শুরু হওয়ায় ও আমের ফলন নিয়ে শংকা থাকায় প্রথম থেকেই মোটামোটি আশানরুপ দাম পাচ্ছেন বিক্রেতারা। তবে গত কয়েক বছরের টানা ক্ষতির পর অনেকেই আবারও এই ব্যবসা শুরু করতেই পারেননি। এ বছর প্রশাসনিক নজরদারি ও সচেতনতা বাড়ায় প্রায় নির্ভেজাল আম সরবরাহ হচ্ছে বলেই ধারণা করা হচ্ছে।
রোববার (৯’জুন) দুপুরে সদরের কোর্ট এলাকার একটি বাগানে গাছ থেকে ক্ষীরসাপাত আম পেড়ে ঢাকার আড়তে পাঠানোর জন্য গাছের নীচেই ঝুঁড়ি করার সময় সদরের ব্যবসায়ী রামকৃষ্টপুর এলাকার হোসেন আলী (৫০) বলেন, এ বছর আমে লাভের আশা করছি। একই কথা বললেন একই এলাকার ব্যবসায়ী রফিক হোসেন(৫৫)। এরা পুরোনো ব্যবসায়ী।
স্থানীয় বাজারে ভাল মানের গোপালভোগ ৫০ ও ক্ষীরসাপাত ৪০ টাকা কেজির নিচে এখনও নামেনি। ব্যবসায়ীরা আশা করছেন দাম আরও বাড়বে। আষাাঢ় মাস পড়লে বাজারে নামতে শুরু করবে ল্যাংড়া জাতের আম। ###

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More