বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ হতোনা :লন্ডনে জাতির পিতার ৯৯তম জন্মবার্ষিকীর আলোচনা সভায় বক্তারা(ভিডিও)

47

জিবি নিউজ লন্ডন ||

বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ হতোনা, বঙ্গবন্ধুর জন্যে আমরা নিজকে বিশ্বদরবারে বাঙ্গালী হিসেবে পরিচয় দিতে পারছি, লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন আয়োজিত হাজার বছরের শ্রেষ্ট বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবসের আলোচনা সভায় বক্তারা এঅভিমত ব্যক্ত করেন। বক্তারা বলেন বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা
গতকাল ১৭ই মার্চ লন্ডন সময় সন্ধ্যে সাতঘটিকায় ইষ্টলন্ডনের ইমপ্রেশন ইভেন্ট ভ্যানুতে লন্ডনস্থ বাংলাদেশ মিশন আয়োজন করে আলোচনা সভা, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্টানের। অনুষ্টানের শুরুতে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে ফুলদিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন লন্ডনে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম ও বাংলাদেশ মিশনের কর্মকর্তারা। এর পর বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে পুষ্টার্ঘ অর্পণ করা হয়।

দিনটি উপলক্ষে বাংলাদেশ মিশনের ফাষ্ট সেক্রেটারী সুদিপ্ত আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্টানের শুরুতে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড.এ কে আব্দুল মোমেনের বাণী পাঠ করেন সহ কারী হাইকশিশনার মোহাম্মদ জুলকাইর নাইন, মিনিষ্টার কন্সুলার লুৎফুর রহমান ও মিনিষ্টার প্রেস আশেকুন নবী চৌধুরী। এর পর জাতির জনকের জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে বক্তব্য রাখেন অমর একুশে গানের রচয়িতা জীবন্ত কিংবদন্তি প্রবীণ সাংবাদিক আব্দুল গাফফার চৌধুরী, প্রবাশে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক সুলতান মাহমুদ শরীফ ও হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম। বৃটেনে জন্ম নেয়া চতুর্থ প্রজন্মের ব্রিটিশ বাঙ্গালী শিশু কিশোরদের জন্যে আয়োজন করা হয় বৃটেন ও বঙ্গবন্ধু শীর্ষক চিত্রাঙ্কন এবং রচনা প্রতিযোগীতা। শতাধিক শিশু কিশোর এবং প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। ‘‘ক’’ এবং ‘‘খ’’ গ্রুপে প্রথম দ্বিতীয় এবং তৃতীয় বিজয়ীর হাতে সার্টিফিকেট ও পুরস্কার তুলে দেন হাইকমিশনার। এর পর শিশু-কিশোরদের নিয়ে জন্মদিনের কেক কাটেন হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম ও অতিথিরা। সবশেষে স্থানীয় শিল্পিদের পরিবেশনায় অনুষ্টিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্টান।

মন্তব্য
Loading...