৪০০ উইকেটের ম্যাচে হেরাথের রেকর্ডের ছড়াছড়ি

1,587
gb

পাকিস্তানের শেষ ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ আব্বাসের উইকেটটি যেন রঙ্গনা হেরাথের ভাগ্যেই লেখা ছিল। তা না হলে দিলরুয়ান পেরেরা নো বল করবেন কেন? এই উইকেটটি না হলে যে টেস্ট ক্রিকেটে ৪০০ উইকেট পূরণ হতো না ৩৯ বছর বয়সী লঙ্কান স্পিন জাদুকরের।

তিনিই প্রথম বাঁ-হাতি স্পিনার যিনি ৪০০ উইকেটের এই অনন্য মাইলফলক স্পর্শ করলেন।

তবে টেস্ট ক্রিকেটে ৪০০ উইকেটের ঘটনা বিরল নয়। হেরাথের আগে আরো ১৩ জন ক্রিকেটার ৪০০ কিংবা তার বেশি উইকেট নিয়েছেন। ৮০০ উইকেট নিয়ে তো সবাইকে ছাড়িয়ে আছেন হেরাথের স্বদেশী স্পিন কিংবদন্তি মুত্তিয়া মুরালিধরন। ৭০৮ উইকেট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছেন আরেক স্পিন কিংবদন্তি অস্ট্রেলিয়ার শেন ওয়ার্ন। ভারতের অনিল কুম্বলের আছে ৬১৯ উইকেট।

হেরাথের প্রিয় প্রতিপক্ষ সম্ভবত পাকিস্তান। তার ৬ উইকেটের ফলে এই প্রথমবারের মতো পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে ১০০ উইকেট নেওয়ার মাইলফলক স্পর্শ করলেন কোনো বোলার। ভারতের কপিল দেবের ৯৯ ছিল পাকিস্তানের বিপক্ষে আগের সর্বোচ্চ।

 

বয়সেই দিক দিয়েও একটি মাইলফলক স্পর্শ করেছেন তিনি।  ৩৫ বছর পেরুনোর পর ইতিহাসের প্রথম পেসার হিসেবে স্পর্শ করলেন ২০০ টেস্ট উইকেটের মাইলফলক। ১৯২ উইকেট নিয়ে এতদিন সবার ওপরে ছিলেন অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি লেগ স্পিনার ক্ল্যারি গ্রিমেট। ১৮১ উইকেট ছিল শেন ওয়ার্নের।

রেকর্ডের এখানেই শেষ নয়! ৪০০ কিংবা তার বেশি উইকেট নেওয়া পঞ্চম স্পিনার হেরাথ। পাকিস্তানের বিপক্ষে আবুধাবি টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ৪৩ রানে ৬ উইকেট নিয়েছেন তিনি। এই নিয়ে ম্যাচের চতুর্থ ইনিংসে মোট ১১ বার ৫ কিংবা ততোধিক উইকেট পেলেন হেরাথ। এই রেকর্ডে তিনি সবার শীর্ষে। চতুর্থ ইনিংসে ৭ বার করে ৫ উইকেট নিয়ে হেরাথের পরে আছেন মুরালিধরন এবং শেন ওয়ার্ন।