সহিংসতা ছাড়াই খুলনা-৬ আসনে সংসদ নির্বাচন সম্পন্ন

157
gb

মোঃ আব্দুল আজিজ, পাইকগাছা (খুলনা)  ||
খুলনা-৬ আসনে কোন সহিংসতা ছাড়াই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। আইনশৃংখলা বাহিনী ৩ ব্যক্তিকে আটক করেছে। রবিবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে নির্বাচনী এলাকা পাইকগাছা ও কয়রার ১৪১ টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ভোটারদের উপস্থিতি বেশি পরিলক্ষিত হলেও দুপুরের পর উপস্থিতি কিছুটা কমে যায়। দিনভোর নির্বাচনে তরুন ও নারী ভোটারদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত। প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম কেরু জানান, গড়ইখালীতে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাড়–লী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ গোলদার জানান, নির্বাচনে প্রতিটি কেন্দ্রে ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতি ছিল। জি,এম, ইকরামুল ইসলাম জানান, চাঁদখালীর সবকটি কেন্দ্রে নির্বাচনে উৎসবমুখর পরিবেশ ছিল। নির্বাচনে কোথাও কোন সহিংসতার খবর পাওয়া যায়নি। তবে আইনশৃংখলা বাহিনী পাইকগাছা পৌরসভার সরল দীঘিরপাড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ভিলেজ পাইকগাছা মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে ৩ ব্যক্তিকে আটক করে। আটককৃতরা সবাই বিভিন্ন নাশকতা মামলার আসামী বলে থানা পুলিশ জানিয়েছে। নির্বাচনে প্রথম ভোট দিতে পেরে আনন্দ প্রকাশ করেছে তরুন ভোটার ইভা মন্ডল। সে সকাল ১০টার দিকে শহীদ গফুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট প্রদান করে বলে জানায়। মৃণাল কান্তি বাছাড় জানান, এবারের নির্বাচন আমাদের মত তরুনদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছিল। ফলে তরুন ভোটাররা নির্বাচনে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে। নির্বাচনে কোথাও কোন সহিংসতার খবর পাওয়া না গেলেও কোন কোন কেন্দ্রে ধানের শীষ প্রতীকের এজেন্টকে দেখা যায়নি। দুপুরের পর ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী নির্বাচন থেকে সরে দাড়িয়েছেন বলে গুঞ্জন শোনা যায়। তবে এর বিশ্বস্ত কোন সূত্র পাওয়া যায়নি। নির্বাচনে আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে এলাকায় মোতায়েন ছিল সেনাবাহিনী, বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশ। ওসি আমিনুল ইসলাম বিপ্লব জানান, নির্বাচনে কোথাও কোন সহিংসতার ঘটনা ঘটেনি। বিভিন্ন স্থান থেকে ৩ ব্যক্তিকে আটক করা হয়। যারা সবাই বিভিন্ন মামলার এজাহার নামীয় আসামী। বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী রিটার্ণিং অফিসার জুলিয়া সুকায়না জানান, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। তিনি বলেন, ভিজিলেন্স ও অবজারভেশন টিমের সদস্যদের নিয়ে আমি বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করেছি। কোন কেন্দ্রের কোথাও কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। প্রথমবারের মত সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের এ বিজয়কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও নির্বাচনী এলাকার মানুষকে উৎসর্গ করে নবনির্বাচিত এমপি আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান বাবু বলেন, নির্বাচনী এলাকা পাইকগাছা-কয়রার সকল মানুষের দোয়া ও ভালবাসা ছিল বলেই নির্বাচনে অনেক মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীদের মধ্যে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছিলাম। তেমনি নির্বাচনেও এলাকার মানুষ স্বতঃস্ফুর্ত অংশগ্রহণ করে উৎসবমুখর পরিবেশে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে আমাকে বিপুল ভোটে জয়ী করেছে। জননেত্রী শেখ হাসিনা ও এলাকার সাধারণ মানুষ, দলীয় নেতাকর্মী সহ সকলের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। সুন্দরবন সংলগ্ন অবহেলিত এ এলাকার মানুষের পাশে থেকে সকলের সহযোগিতা নিয়ে নির্বাচনী এলাকার উন্নয়নে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন আওয়ামীলীগের নবনির্বাচিত তরুন এ এমপি।