চাঁপাইনবাবগঞ্জের কিরনগঞ্জ সীমান্তে বিএসএফ’র গুলিতে বাংলাদেশী নিহতের অভিযোগ

171
gb

 জাকির হোসেন পিংকু, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি: চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার কিরনগঞ্জ সীমান্তে কপালে গুলিবিদ্ধ আব্দুর রহিম (২২) নামে এক বাংলাদেশীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি ওই সীমান্তের ঝড়তলা এলাকার মোর্শেদ আলীর ছেলে। স্থানীয় ও পরিবার সুত্রে দাবী করা হয়েছে,সোমবার (১৭’ডিসেম্বর) ভোররাত সাড়ে ৩টার দিকে সীমান্তে ২৪’বিএসএফ ব্যাটালিয়নের শুখদেবপুর ক্যাম্প সদস্যদের গুলিতে নিহত হন রহিম। ভোর ৫টার দিকে স্থানীয় সুত্রে খবর পেয়ে কিরণগঞ্জ বিওপির টহল দল সীমান্তের আড়াইশ গজ ভেতরে রহিমের বাড়ির নিকট একটি বাঁশঝাড় সংলগ্ন মাঠ থেকে রহিমের লাশ উদ্ধার করে পুলিশকে জানায়। বিজিবির নিকট সংবাদ পেয়ে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ দুপুরে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় বিজিবি’র সংশ্লিষ্ট ৫৯’ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে.কর্ণেল এসএম সালাউদ্দিন জানান,এ ঘটনায় দুপুর ১টার দিকে সীমান্তে বিওপি পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে ঘটনার প্রতিবাদ করা হয়েছে। কিন্তু এ ঘটনার ব্যাপারে বিএসএফ দায় অস্বীকার করে জানিয়েছে,সীমান্তে তারা কোন গুলি ছোঁড়েনি। অধিনায়ক বলেন, ঘটনার বিস্তারিত তদন্ত চলছে। বিএসএফকে প্রটেষ্ট নোট দেয়া হবে। অধিনায়ক আরও বলেন,সীমান্তের ৫শ’গজ ভেতরে রহিমের লাশ উদ্ধার হয়েছে। তিনি মাদক চোরাচালানে জড়িত ছিলেন কিনা সেটিও তদন্ত করা হচ্ছে। কোন অন্ত:কোন্দলেও রহিম নিহত হয়ে থাকতে পারেন বলে জানান অধিনায়ক। শিবগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আতিকুর রহমান জানান, লাশের কপালে গুলির চিহ্ন রয়েছে। পরিবারের বরাত দিয়ে তিনি জানান,ভোররাতে বিএসএফ’র গুলিতে সীমান্তে রহিম নিহত হন। তবে এ ব্যাপারে পরিবার কোন অভিযোগ করেনি। রহিমের পেশা সম্পর্কেও নিশ্চিত কোন তথ্য কোন সূত্রে জানা যায়নি। ###