ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন  ১০ ডাউনিং স্ট্রিটের সামনে যুক্তরাজ্য বিএনপির  মানব বন্ধন        

416
gb

বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও নিঃশর্ত মুক্তি  এবং দেশনায়ক তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার রায় প্রত্যাহারের দাবীতে আজ ৩রা অক্টোবর রোজ  বুধবার  ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে এমপি সরকারি বাসভবন ১০ ডাউনিং স্ট্রিটের সামনে  মানব বন্ধন করেছে যুক্তরাজ্য বিএনপি    

যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম  মালিকের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমেদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত  মানব বন্ধন কর্মসূচিতেযুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শহর থেকে বিএনপির নেতৃবৃন্দজোনাল কমিটির নেতৃবৃন্দঅঙ্গ  সহযোগী সংগঠনের শত শত নেতাকর্মীসহ ব্রিটিশ বাংলাদেশীকমিউনিটির নেতৃবৃন্দগণ বিভিন্ন পোস্টারব্যানার  ফেস্টুন হাতে নিয়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি দাবী করে।   

যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম  মালিক তার বক্তবে বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করে বলেনঅবৈধ আওয়ামী বাকশালি সরকার দেশের মানুষের সকল মৌলিক অধিকার হরণ করার পাশাপাশি দেশের সকল সম্পদ লুন্টন করে অবৈধ সম্পদের পাহাড় গড়ে তুলেছে। এই অবৈধ সরকার জেলজুলুম নির্যাতন করে ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে পারবে না দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া কিছু হলে তার দায়দায়িত্ব সরকারকে বহন করতে হবে গণতন্ত্রের অতন্ত্রপ্রহরী মা দেশনেত্রী বেগম জিয়া কারা মুক্ত না হয়া পর্যন্ত আমাদের প্রতিবাদ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবেতিনি অবিলম্বে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসাও মুক্তির জোর দাবী  করেন   

সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমেদ বলেনস্বৈরাচারী হাসিনা সরকার তাদের ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে বন্দি করে রেখেছেবেগম জিয়ার কিছু হলে এর দায় এই অবৈধ সরকারকে নিতে হবে অবৈধ সরকারের প্রতি দেশের সর্বস্তরের মানুষের অনাস্থা আজ পরিস্কার উঠায় তারা দেশ ছেড়ে পালাবার পথ খুজে পাচ্ছে না। সরকার সম্পূর্ণ গায়ের জোরে দেশনেত্রী বেগম খালেদ জিয়াকে বন্দি করে রেখেছে। বিএনপির জনপ্রিয়তায় সরকার দিশেহারা হয়ে পড়েছে। দেশে আজ সকল পেশা শ্রেণীর মানুষ সরকারের অন্যায় অত্যাচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছে। তিনি বলেনআওয়ামীলীগের সকলষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে দেশের জনগণ দেশনেত্রী মা বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে জনগনের মধ্যে ফিরিয়ে আনবে   

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More