গাভী’ প্রতীকে উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেবে বাংলাদেশ ন্যাপ : জেবেল

70

আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় ‘গাভী’ প্রতীক নিয়ে বাংলাদেশ ন্যাপ নির্বাচন করবে বলে মন্তব্য করে যুক্তফ্রন্টের অন্যতম শীর্ষ নেতা ও বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি বলেন, আমরা আশা করি শান্তিপূর্ণ, নির্বিঘ্ন ও নিরুদ্রব পরিবেশে উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত করতে নির্বাচন কমিশন যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে স্বক্ষম হবে। আমরা উপজেলা নির্বাচনের সামগ্রীক বিষয় বিবেচনা করে প্রথমধাপের নির্বাচনে অংশগ্রহন করতে চাই।

 তিনি বলেন, উপজেলা নির্বাচন স্থানীয় উন্নয়ন, জনজীবনের সমস্যার প্রশ্নে স্থানীয় সরকারের সব নির্বাচনকেই তৃনমূলের জনগণ তাদের একান্ত নিজের নির্বাচন বলে মনে করে। তাই তৃণমূল জনগনের গণতান্ত্রিক মন মানসিকতাকে সম্মান জানাতেই বাংলাদেশ ন্যাপ সকল স্থানীয় নির্বাচনে অংশগ্রহন করার আশা রাখে। 

 সোমবার নয়াপল্টনস্থ যাদু মিয়া মিলনায়তনে “বিভিন্ন রাজনৈতিক দল হতে বাংলাদেশ ন্যাপ-এ যোগদান উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

 তিনি বিভিন্ন রাজনৈতিক দল থেকে বাংলাদেশের ন্যাপে যোগদানকারীদের স্বাগত জানিয়ে বলেন, স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা মজলুম জননেতা মওলানা ভাসানীর স্বপ্নের বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ভিত্তিতে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

 ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া’র সভাপতিত্বে ও ঢাকা মহানগর সভাপতি মো. শহীদুননবী ডাবলু’র সঞ্চালনায় সভায় আরো বক্তব্য রাখেন এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, ন্যাপ ভাইস চেয়ারম্যান স্বপন কুমার সাহা, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামাল ভুইয়া, মহানগর সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, সদ্য যোগদানকারী বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান হাওলাদার, সাবেক ছাত্রনেতা আরিফুল ইসলাম মামুন প্রমুখ।

 সভায় মওলানা ভাসানীর আদর্শে অনুপ্রানীত হয়ে এবং জেবেল রহমান গানির নেতৃত্বের প্রতি আস্থা জ্ঞাপন করে দলে আরো যোগদান করেন বিএনএফ পিরোজপুর জেলা সহ-সভাপতি রেজাউল করিম গাজী, লেবার পার্টি সদস্য  ইউসুফ পাটোয়ারী, শরিফুল ইসলাম সৌরভ, আখিনুর রহমান, ডেমরা থানা সভাপতি ইমরান মুন্সী, আশরাফ উদ্দিন প্রমুখ। 

 সভাপতির বক্তব্যে এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, ত্রিশ লক্ষ শহিদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত গৌরবোজ্জ্বল স্বাধীনতা সমুন্নত ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুজ্জ্বল রাখতে দেশ থেকে সন্ত্রাস, মাদক, দুর্নীতি ও জঙ্গিবাদ সম্পূর্ণরূপে নির্মূলের মাধ্যমে শোষণমুক্ত সমাজ-প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

 তিনি বলেন, আমাদের দায়িত্ব এ দেশ ও জাতির অগ্রযাত্রাকে এগিয়ে নেয়া। মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের কাছে আমাদের অপরিশোধ্য ঋণ রয়েছে। ধর্ম-বর্ণ-গোত্র নির্বিশেষে এবং দল-মত-পথের পার্থক্য ভুলে জাতির গণতান্ত্রিক চেতনাকে ত্বরান্বিত করার মধ্য দিয়ে আমরা লাখো শহীদের রক্তের ঋণ পরিশোধ করি।

মন্তব্য
Loading...